national news
Illustrative vial of coronavirus vaccine

মহানগর ওয়েব ডেস্ক: দেশে হুড়মুড়িয়ে বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এহেন অবস্থায় ভ্যাকসিন এর অপেক্ষায় রয়েছে গোটা বিশ্ব। এরই মাঝে রাশিয়া দাবি করেছে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে এন্টিবডি তৈরি করতে সক্ষম ভ্যাকসিন ‘স্পুটনিক ভি’ বানিয়েছে তারা। যে ভ্যাকসিন ভারতে নিয়ে আসার তোড়জোড় চলছে। এরই মাঝে খবর এল, এই ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে যে ৭ জন ব্যক্তির শরীরে এটি প্রয়োগ করা হচ্ছে তার মধ্যে একজন ব্যক্তির শরীরে দেখা যাচ্ছে সাইডএফেক্ট। এই তথ্য প্রকাশ করেছেন রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরাস্কো। নিশ্চিতভাবে এই তথ্য বেশ উদ্বেগজনক।

প্রসঙ্গত রাশিয়ার তৈরি ‘স্পুটনিক ভি’ ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের প্রাথমিক তথ্য ৪ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত হয়েছে দ্য ল্যানসেট জার্নালে। এখানে দাবি করা হয়েছিল ৭৬ জনের শরীরে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে। এবং তাদের প্রত্যেকেই সুস্থ রয়েছেন। ওই জার্নালের দাবি অনুযায়ী মাত্র ২১ দিনে সমস্ত ভলেন্টিয়ারের শরীরে সম্পূর্ণরূপে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে কোনরকম সাইডএফেক্ট ছাড়া। এর পাশাপাশি আরও একটি তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে দাবি করা হচ্ছে যাদের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছিল তাদের মধ্যে ৫৮ শতাংশ মানুষ বলছেন ইনজেকশন যেখানে প্রয়োগ করা হচ্ছে শরীরের সেই অংশে প্রবল যন্ত্রণা অনুভব করছেন তারা। ৫০ শতাংশ মানুষ অভিযোগ করেছেন এই ভ্যাকসিন নেওয়ার পর তাদের শরীরের জ্বর আসছে। ৪২ শতাংশ মানুষের দাবী মাথা যন্ত্রণা। ২৮ শতাংশ মানুষ শারীরিক দুর্বলতা এবং ২৪ শতাংশ মানুষ মাংসপেশিতে প্রচন্ড যন্ত্রণার অভিযোগ করেছেন।

এদিকে বাড়তে থাকা করোনা পরিস্থিতিতে রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিন ভারতে নিয়ে আসার তোড়জোড় শুরু হয়েছে। হায়দ্রাবাদের একটি সংস্থার সঙ্গে জোট বেঁধেছে রাশিয়ার এই ভ্যাকসিন সংস্থা। জানা যাচ্ছে ১০ কোটি ভ্যাকসিন কেনা হবে রাশিয়ার থেকে। তবে বিষয়টি এখনও অপেক্ষা করছে কেন্দ্রের সবুজ সংকেতের। ভারতেও চলছে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল। তবে যে তথ্য সম্প্রতি প্রকাশ এসেছে তা নিশ্চিত ভাবেই ভাবিয়ে তুলছে বিশেষজ্ঞদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here