FotoJet-2-11

ডেস্ক: সপ্তদশ লোকসভা ভোট চলাকালীন যদি কোনও ভাবে ভোটকর্মীদের কোনও ক্ষতি হয়, তবে সেই জন্য ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করে রাখল নির্বাচন কমিশন। কমিশনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কোনও ভোটকর্মীর প্রাণহানির মতো ঘটনা ঘটলে তাঁর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ১০ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। একই সঙ্গে যদি তাদের অঙ্গহানি হওয়ার মতো ঘটনা ঘটে, সে ক্ষেত্রে পাঁচ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে তাদের।

বাড়ি থেকে দূরদুরান্তে ভোট করাতে যান সরকারী কর্মীরা। কখন গ্রামে, কখনও আবার জনমানব শূন্য কোনও স্থানে। ফলে প্রাণের ভয় হাতে নিয়েই অনেক সময় যাতায়াত করতে হয় তাদের। অনেক ক্ষেত্রে ভোটকর্মীদের মর্মান্তিকভাবে মৃত্যুও হওয়ার ঘটনা ঘটেছে বিভিন্ন সময়। উদাহরণস্বরূপ গত পঞ্চায়েত ভোটেই প্রিসাইডিং অফিসার রাজকুমার রায়ের মৃত্যুর মতো ঘটনা রয়েছে। সেই কারণে খুব স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্কে রয়েছেন ভোটকর্মীরা। বিগত কয়েকদিন ধরে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ারে প্রত্যেকটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করার দাবি জানিয়ে বিক্ষোভও দেখিয়ে এসেছেন ভোটকর্মীরা।

এরপরই কমিশনের পক্ষ থেকে জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারদের নির্দেশ দেওয়া হয় ভোটকর্মীদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য। ঘটনাচক্রে, কোচবিহারের ৮৫৭টি বুথে এবং আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের ১ হাজার ২০টি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকছে না। এই সব বুথে থাকবে রাজ্য পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী। আর সেই কারণেই এই বুথগুলিতে ভোট করানো নিয়ে আতঙ্কে রয়েছেন ভোটকর্মীরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here