national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ফের রাজ্যে একজনের শরীরে হদিশ মিলল চিনা মারণ ভাইরাস নোভেল করোনার। তিনি বাইপাস সংলগ্ন এক হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি সাম্প্রতিক কোনও সময়ে বিদেশ যাত্রা করেননি। তাও তাঁর শরীরে কিকরে এই ভাইরাস এল তা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। রাজ্যে এটিই প্রথম কোভিদ-১৯ গোষ্ঠী সংক্রমণ কিনা তার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই নিয়ে রাজ্যে দশম করোনা আক্রান্তের খোঁজ মিলল।

জানা গিয়েছে, শ্বাসকষ্ট সংক্রান্ত সমস্যা নিয়েই তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। প্রাথমিক রিপোর্টে তাঁর করোনা পজিটিভ এসেছে। রিপোর্ট আসার পরই তাঁকে আইসিইউতে শিফট করা হয়। তাঁর পরিবারকেও কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে বাড়িতেই। খবর, সম্প্রতি এই ব্যক্তি মেদিনীপুরে গিয়েছিলেন এক আত্মীয়ের বিয়েতে। সেখানে প্রচুর লোকসমাগম হয়। সেখানে বিদেশফেরত কয়েকজনও আমন্ত্রিত ছিলেন।

অন্যদিকে, বুধবার সন্ধ্যায় রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে যে বুলেটিন প্রকাশ করা হয়েছে তাতে আশার আলো দেখতে শুরু করেছে বঙ্গবাসী। বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গ থাকা এমন ৩৯৬৯ জনকে গৃহবন্দি করেছে রাজ্য সরকার। এছাড়া ৪০৬৭ জনকে রাখা হয়েছে পর্যবেক্ষণে। ৫৪ জনের শরীর থেকে নেওয়া হয়েছে নমুনা। এদের মধ্যে কেউই পজিটিভ নন বলে জানা গিয়েছে। আবার, রাজ্যে আইসোলেশন থাকা ৪৬ জনের শরীরে পাওয়া যায়নি করোনাভাইরাসের হদিশ। মঙ্গলবার দেশজুড়ে লকডাউন জারি হওয়ার পর রাজ্যে নতুন করে কেউ করোনা আক্রান্ত হননি। দেশজুড়ে আতঙ্কের মাঝে পশ্চিমবাংলার এই খবর স্বভাবতই স্বস্তি দিয়েছিল সাধারণ মানুষকে। কিন্তু এই দশম আক্রান্তের খবর আবারও শঙ্কা বাড়াল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here