মহানগর ওয়েবডেস্ক: ১৯৯০, ১৪ অগাস্ট। শচীন তেন্ডুলকরের বয়স তখন ১৭ বছর ১১২ দিন। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে নামার আগে তাঁর আন্তর্জাতিক আঙিনায় অভিজ্ঞতা বলতে আটটি টেস্ট ম্যাচ ও সাতটি ওয়ানডে। ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে সেদিন জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক শতরান করেন মাস্টার ব্লাস্টার। সেই থেকে শুরু। বাকিটা ইতিহাস। আজ সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করা বিশ্বের একমাত্র ক্রিকেটার তিনি।

৩০ বছর আগে করা ১৮৯ বলে অপরাজিত ১১৯ রানের ইনিংসে ভর করে ভারত ম্যাঞ্চেস্টারে টেস্ট বাঁচিয়েছিল। ম্যাচের সেরাও হন মাস্টারব্লাস্টার। কেউ সেদিন ভাবতেও পারেননি যে, এই কিশোরের ব্যাট একদিন বোলারদের কাছে ত্রাস হয়ে উঠবে। এই ভাবে তিনি বিশ্ব শাসন করবেন।

আজ আইসিসি ও বিসিসিআই টুইট করে শচীনের প্রথম সেঞ্চুরির স্মৃতিচারণা করেছে। শচীন নিজে একটি একান্ত সাক্ষাৎকার দিয়েছেন সংবাদসংস্থা পিটিআইকে। তিনি বলছেন, “আমি ১৪ অগাস্ট সেঞ্চুরি করেছিলাম, পরের দিন স্বাধীনতা দিবস ছিল। হেডলাইনট অন্যরকম হয়েছিল। ওটা স্পেশাল ছিল। ওই সেঞ্চুরির জন্য ওভালে পরের ম্যাচ অবধি আমাদের সিরিজের আশা বেঁচে ছিল।”

শচীন আরও বলেছেন আমি টেস্ট ম্যাচ বাঁচানোর একটা নতুন অভিজ্ঞতা হয়েছিল। আমি জানতাম যে টেস্ট ম্যাচ বাঁচাতে পারব। কারণ এর আগে শিয়ালকোটে ওয়াকার ইউনিসের বাউন্সারে আমার নাক ফেটে রক্ত বেরিয়েছিল। ওই যন্ত্রণা নিয়ে ৫৭ করেছিলাম। ৩৮/৪ থেকে আমরা টেস্ট বাঁচাই। ওরকম যন্ত্রণার পর নয় মানুষ শক্তিশালী হয়, না হয় হারিয়ে যায়।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here