ডেস্ক: বিগত কয়েক বছর ধরে জম্মু কাশ্মীর সীমান্তে লাগাতার  চলছে পাক রেঞ্জার্সদের হামলা। ঘটনার জেরে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে সেনা-সহ জম্মু কাশ্মীরের বহু বাসিন্দাj। আন্তর্জাতিক মহলে ভারত বারবার পাক হানাদারির বিরোধিতা করলেও লাভ কিছুই হয়নি। উল্টে কাশ্মীর সীমান্তে ব্যাপকভাবে পাক সেনাদের গুলি বর্ষণের ঘটনা বেড়েছে। সীমান্তবর্তী কাশ্মীরীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে এবার উদ্যোগ নিল কেন্দ্র। জানা গিয়েছে, ৪১৫.৭৩ কোটি টাকা খরচ করে সেখানে ১৪ হাজার ৬৬০ টি বাঙ্কার তৈরি করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে সবুজ সংকেত দিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র।

সূত্রের খবর, জম্মু কাশ্মীরের যে সমস্ত এলাকায় পাক সেনার হামলার ঘটনা সবচেয়ে বেশি, সেই সমস্ত এলাকাগুলিতেই এই বাঙ্কার তৈরির সিদ্ধান্ত নওয়া হয়েছে। জানা গিয়েছে কাশ্মীরের পাঁচটি জেলা সাম্বা, পুঞ্চ, জম্মু, কাঠুয়া, রাজৌরি সহ ইন্দো–পাক সীমান্তে মোট ১৪,৪৬০টি বাঙ্কার তৈরি করা হবে। যে বাঙ্কারগুলি তৈরিতে খরচ পড়বে ৪১৫.৭৩ কোটি টাকা। সীমান্ত থেকে ৩ কিলোমিটারের মধ্যে এই বাঙ্কারগুলি তৈরির বরাত দেওয়া হয়েছে ‘ন্যাশনাল বিল্ডিং কনস্ট্রাকশন কর্পোরেশন’ (‌এনবিসিসি)কে‌। ১৬০ স্কোয়্যার ফুটের বাঙ্কারে ৮ থেকে ১০ জন করে থাকতে পারবে। আর কমিউনিটি বাঙ্কারে থাকবে ৪০ জন করে। শুধু তাই নয়, নিরাপত্তাকে অতিরিক্ত গুরুত্ব দিয়ে ২ থেকে ৩ দিনের মধ্যে যাতে বাঙ্কারগুলি তৈরি হয়ে যায় তাঁর জন্য বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। জম্মু ও কাশ্মীর সরকারের দেওয়া ডেডলাইনের মধ্যেই কাজ সম্পূর্ণ হবে জানানো হয়েছে এনসিসির পক্ষ থেকে।

উল্লেখ্য, বগত কয়েক বছরের তুলনায় এই বছর সীমান্তে সবচেয়ে বেশি সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। চলতি বছরে ৬৫০ বার ভারতীয় সীমান্তে গুলি চালিয়েছে তারা। ভারত তার পাল্টা দিলেও, পাক গুলিতে মৃত্যু হয়েছে বহু কাশ্মীরির । আহত হয়েছেন অনেকেই। সম্প্রতি কাশ্মীরে পাক গুলিতে মৃত্যু হয় একই পরিবারের পাঁচ জনের। বিষয়টি যে উদ্বেগজনক, তা মেনে নিয়েই এবার কাশ্মীিরদের নিরাপত্তার বিষয়ে পদক্ষেপ নিল কেন্দ্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here