bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সচেতনতা তখনই বাড়ে যখন আপনি নিজে সচেতন হন। একমাত্র সচেতনাই পারে এই মারণ ভাইরাস থেকে আমাদের বাঁচাতে। কিন্তু মানুষ যদি সচেতনই না হয় তাহলে বাঁচানোর জন্য পাওয়া যাবে না কাউকেই, এটা মানতেই হবে। এই অসচেতনতার কারণেই ভারতে আরও বেশি করে বাড়ছে করোনা আতঙ্ক, বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। এই সময়ই বিস্ফোরক এক তথ্য সামনে এল। পঞ্জাবের লুধিয়ানায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হতে পারে প্রায় ১৬৭, বিস্ফোরক ব্যাপার এদের সকলেই এখন ‘মিসিং’!

সূত্রের খবর, বিদেশ থেকে আসা অন্তত ১১৯ ভারতীয়দের খোঁজে দুটি দল গঠন করেছিল সরকার। একটি দল তাদের মধ্যে ১২ জনকে খুঁজে পেয়েছে, বাকিদের খোঁজ চালাচ্ছে অন্য দলটি। স্বাস্থ্য দফতর আরও ১৭ জনকে খুঁজে পেয়েছে বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু এদের ছাড়াও ১৬৭ জনের তালিকা রয়েছে রাজ্য সরকারের কাছে। তবে এদের মধ্যে কাউকে এখনও পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি। কেন তাদের কাউকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এই বিষয় জানাতে গিয়ে এক সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন, এদের মধ্যে বেশিরভাগই ভুল তথ্য দিয়েছেন, কেউ বাড়ির ঠিকানা ভুল দিয়েছেন, কেউ ফোন নম্বর। কিন্তু জানান হয়েছে যে সরকারের তরফে তাদের খুঁজে বের করার সবরকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এখন দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৫২! বিশ্বের নিরিখে এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২,০০,১০৬, মৃত্যু হয়েছে ৮,০১০ জনের। বিশেষজ্ঞদের মতে, চিনের থেকেও চিনের বাইরে ১৭ গুণ বেশি হারে ছড়াচ্ছে এই রোগ। চিনের পরে সবচেয়ে বেশি খারাপ অবস্থা ইতালি এবং ইরানে। সেখানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে গোটা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। ভারতও যথেষ্ট পরিমাণে পদক্ষেপ নিচ্ছে কিন্তু সাধারণ মানুষের চিন্তা কমছে না কিছুতেই। অন্যদিকে, একাধিক বড় বড় কোম্পানি তাদের কাজও আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ ছাড়া অ্যামাজন ডেলিভারি বন্ধ রেখেছে। গুগল সহ একাধিক আইটি সংস্থা তাদের কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছে। এদিকে, গোটা ভারতেই প্রায় ৩১ মার্চ পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে বিভিন্ন রাজ্য সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here