মহানগর ওয়েবডেস্ক: দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষ ৯৮ হাজার ছাড়িয়ে গেল। মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ১,৯৮,৭০৬। দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৫৯৮। মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় এখন বিশ্বের সাত নম্বর দেশ ভারত। শেষ ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮১৭১ জন। এই সময়ে প্রাণ হারিয়েছেন ২০৪ জন। এখনও পর্যন্ত ৯৫,৫২৬ জন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। ভারতে এই মুহূর্তে এক্টিভ কেস ৯৭,৫৮১।

কেন্দ্রের রিপোর্ট অনুযায়ী, এখনও দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব সবচেয়ে বেশি মহারাষ্ট্রে। সেখানে ৭০,০১৩ জন করোনা আক্রান্ত, মারা গিয়েছেন ২৩৬২ জন। তারপরেই আছে তামিলনাড়ু (২৩,৪৯৫), দিল্লি (২০,৮৩৪), গুজরাট (১৭,২০০), রাজস্থান (৮৯৮০), মধ্যপ্রদেশ (৮২৮৩), উত্তরপ্রদেশ (৮০৭৫), পশ্চিমবঙ্গ (৫৭৭২), বিহার (৩৯২৬), অন্ধ্রপ্রদেশ (৩৭৮৩), কর্ণাটক (৩৪০৮)।

উল্লেখ্য, আজ অর্থাৎ ১ জুন থরকর সারা দেশে পঞ্চম দফার লকডাউন বা ‘আনলক ১.০’ শুরু হয়েছে। গতকাল, ৩১ মে পর্যন্ত শেষ হয় চতুর্থবারের লকডাউনের মেয়াদ। লকডাউন ৫.০-র নির্দেশিকায় একাধিক ছাড়ের পাশাপাশি নাইট কার্ফুর কথা বলা হয়েছে। সাধারণ মানুষ যাতে রাস্তায় না বেরোন তার জন্য রাত ৯টা থেকে সকাল ৫টা পর্যন্ত কার্ফু জারি করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এর অর্থ এই সময় কনটেইনমেন্ট জোন, গ্রীন, অরেঞ্জ বা রেড জোন, কোন জায়গাতেই এই সময় কেউ বের হতে পারবেন না। সব জায়গাতেই এই কার্ফু প্রযোজ্য হবে। তবে কন্টেইনমেন্ট জোন বাদে সব জায়গাতেই রেল পরিষেবা বাদে প্রায় সবকিছুই ধাপে ধাপে খুলে যাবে এই লকডাউনে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here