নিজস্ব প্রতিবেদক, সিউড়ি: ফের পচা মাংস বিতর্ক মাথা চাড়া দিল রাজ্যে। এবারের ঘটনাস্থল বীরভূম জেলার সদর শহর সিউড়ি। জেলার সদর মহকুমার মুহাম্মদবাজার ব্লকের প্যাটেলনগরের বাসিন্দা কল্যাণ চ্যাটার্জীর অভিযোগ, গত মঙ্গলবার উনি সিউড়ি শহরের বেণীমাধব স্কুলমোড়ের একটি মাংসের দোকান থেকে ৫০০গ্রাম মাংস কিনেছিলেন। সেটি তিনি বাড়ি গিয়ে বাড়িতে গিয়ে ফ্রীজে রেখে দেন। বুধবার সকালে তার স্ত্রী মাংস ধুতে গিয়ে লক্ষ্য করেন যে মাংস থেকে পচা দুর্গন্ধ ছাড়ছে। বিষয়টি তিনি কল্যাণবাবুকে জানালে তিনি সেই মাংস নিয়ে সোজা সিউড়িতে চলে আসেন। যে দোকান থেকে তিনি ওই মাংস নিয়েছিলেন সেখানে গিয়ে তিনি তা দেখালে দোকানদার ওই মাংস ফেরত নিয়ে তাকে সমপরিমাণ মাংস দিতে চাইলেও তিনি তা নিতে অস্বীকার করেন।

দোকানদার তখন তাকে মাংসের দাম ফেরত দিয়ে দেয়। এরপর কল্যাণবাবু সিউড়ি থানায় গিয়ে ওই দোকানদারের বিরুদ্ধে মৌখিক ভাবে অভিযোগ জানান। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ এসে ওই দোকানের মালিক দুলু ও তার এক কর্মচারীকে আটক করে। কিন্তু বেণীমাধব মোড় এলাকার অনান্য ব্যবাসায়ীরা গোটা বিষয়টি নিয়ে রীতিমত সংশয় প্রকাশ করেছেন। তাদের দাবি, গোটা বিষয়টি কোন বৃহত্তর ষড়যন্ত্রের অংশ হতে পারে। কারণ যে দোকান থেকে মাংস নিয়ে অভিযোগ তোলা হয়েছে তা বহু দিনের পুরানো। এর আগে ওই দোকান থেকে মাংস নিয়ে গিয়ে কেউই এই ধরনের কোন অভিযোগ তোলেননি। তাছাড়া কল্যাণবাবু যদি অভিযোগ জানাতেই মনস্থির করে থাকতেন তাহলে তা লিখিত ভাবে করলেন না কেন!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here