ডেস্ক: সিপিএমের ভরাডুবিতে কোনও মতে সাঁতরে বিজেপির নৌকায় উঠেছেন তিনি। কিন্তু কাটল না বিপদ! বাংলাকে ওলটপালট করে দেওয়া নন্দীগ্রামের সেই বেতাজ বাদশা লক্ষ্ণণ শেঠকে এবার হাজতে ঢোকাতে উঠেপড়ে লাগল সিআইডি। ২ তৃণমূল নেতা অপহরণের মামলায় গত মার্চ মাসেই মামলা দায়ের হয়েছিল লক্ষ্ণণ শেঠের বিরুদ্ধে, সেই মামলাই এবার হাতে তুলে নিল সিআইডি।

সিআইডির হাতে মামলা ওঠায় এবার বিপদ বাড়তে চলেছে লক্ষ্ণণ শেঠের। ঘটনার সুত্রপাত ২০০৭ সালে। তৃণমূল নেতা দূর্গা প্রসাদ মাইতি এবং সুব্রত সামন্তকে অপহরণের অভিযোগ ওঠে লক্ষ্ণণ শেঠের বিরুদ্ধে। সিপিএম আমলে সেই মামলায় সেভাবে কোনও পদক্ষেপ নেয়নি পুলিশ অভিযোগ ছিল এমনই। সরকার পরিবর্তনের পর গত মার্চ মাসে লক্ষ্ণণ শেঠের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয় নন্দিগ্রাম থানায়। এরপর সেই অপহরণ মামলার তদন্তভার হাতে তুলে নিল সিআইডি।

উল্লেখ্য, লক্ষ্ণণ শেঠের বিরুদ্ধে অভিযোগ এই নতুন নয়। গত বছরের জানুয়ারি মাসে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা নয়ছয় এবং দুর্নীতির অভিযোগে হলদিয়ার প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ লক্ষ্মণ শেঠকে তলব করে সিআইডি। সেই দুর্নীতির তদন্ত এখন চালাচ্ছে সিআইডি। এরপর ফের অপহরণ মামলায় বিপদ বাড়ল লক্ষ্ণণ শেঠের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here