mamta cm bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক:   ২০২০র আগে খেলা শুরু করে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যাইহোক এটা তাঁর সম্মান রক্ষার লড়াই৷ তার কারণ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিতের অমিত বিক্রমকে ইতিমধ্যেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ফেলেছেন তিনি৷ তাঁর সোজা কথা, ক্ষমতা থাকলে কেন্দ্রীয় সরকার আবংলার মাটিতে এনআরসি, ক্যাব করে দেখাক৷ পাল্টা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাফ কথা, বাংলার মাটিতে দুটোই করব৷ দেখি কে আটকায়! তাই ২০১৯ এর ২০ ডিসেম্বর দলের জরুরি বৈঠক ডাকলেন তিনি৷। এই বৈঠকে শুধু সামনের বছর পুরভোটই নয়, ক্যাব এর মোকাবিলা, এনআরসি নিয়ে নয়া কৌশল ঠিক হবে ওই সভায় বলে সূত্রে প্রকাশ৷ সংসদে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হওয়ার পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য এই বৈঠক ডাকা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। বৈঠকে তৃণমূলের সব সাংসদ, বিধায়কদের ডাকা হয়েছে। বিকেল চারটেয় বৈঠক হবে দলীয় সদর দফতরে।

অসমে এনআরসি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিল তৃণমূল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সাংসদদের সেখানে পাঠিয়েছিলেন। যদিও তাঁদের বিমানবন্দরের বাইরে বের হতে দেওয়া হয়নি। জাতীয় নাগরিকপঞ্জিকরণের খসড়া তালিকায় ১৯ লক্ষ মানুষের নাম বাদ যাওয়া নিয়েও প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভায় অনুপস্থিত ছিলেন ৮ সাংসদ সোমবার লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হয়। কিন্তু সেদিন তৃণমূলের ৮ সাংসদ অনুপস্থিত ছিলেন সেখানে। দলের হুইপ থাকা সত্ত্বেও এই অনুপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। যাঁরা হাজির ছিলেন না তাঁরা হলেন. শিশির অধিকারী, দিব্যেন্দু অধিকারী, মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহান, সাজদা আহমেদ, খলিলুর রহমান, চৌধুরী মোহন জাটুয়া এবং দেব।

রাজ্যসভায় একের পর এক সংশোধনী বাতিল বুধবার রাজ্যসভায় বিল পাশের আগে তৃণমূলের তরফে ডেরেক ও’ব্রায়েন এবং সুখেন্দুশেখর রায় একাধিক সংশোধনী জমা দিয়েছিলেন। যদিও তা সবই সংখ্যাগরিষ্ঠতার নিরিখে বাতিল হয়ে যায়। কেন্দ্রের সম্ভাব্য পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এবার আইনে পরিণত হতে যাচ্ছে। এই নিয়ে দলীয় কৌশল ২০ ডিসেম্বরই ঠিক করে ফেলবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here