ডেস্ক: দেশজুড়ে ইতিমধ্যেই নোটের আকাল শুরু হয়েছে বিভিন্ন রাজ্যের এটিএমগুলিতে। যা নিয়ে কেন্দ্রীয় বিজেপ্পি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বিরোধী নেতারা। এরই মাঝে এবার নতুন করে নোট সঙ্কটের মুখে পড়তে চলেছেন ভারতবাসী। ২০০ ও ৫০০ টাকার নোট ছাপানো আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানালো কেন্দ্র।

প্রেস ওয়ার্কাস ফেডারেশন প্রেসিডেন্ট জগদীশ গডসে জানান, ‘কালির অভাবে আপাতত বন্ধ রাখা হবে ২০০ ও ৫০০ টাকার নোট। মূলত যে কালি দিয়ে এই কাগজ ছাপানো হয় তা আসে বিদেশ থেকে। কিন্তু সেই কালি বিদেশ থেকে এখনও আসেনি। যার জেরেই ছাপান সম্ভব হচ্ছে না ২০০ ও ৫০০ টাকার নোট।’ একইসঙ্গে তিনি স্বীকার করে নেন এই নোট ছাপা বন্ধ হওয়ার ফলে সাময়িকভাবে চরম নোটসঙ্কটে পড়বেন ভারতবাসী।’ একইসঙ্গে দেশে নোট সঙ্কট কাটাতে গত সপ্তাহেই নোট ছাপানোর গতি পাঁচগুন বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। এরই মাঝে এভাবে ২০০ ও ৫০০ টাকার নোট ছাপা বন্ধ হয়ে গেলে নোট সঙ্কট যে চরম অবস্থা নেবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

উল্লেখ্য, বর্তমান সময়ে দেশ জুড়ে যেভাবে নোট সঙ্কট চলছে তাকে ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বরের সঙ্গে তুলনা করেছেন বিরোধীরা। বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, ছত্তিশগড়, কর্নাটকের মতো রাজ্যগুলির এটিএমে চলছে হাহাকার। দিলিইর বেশ কিছু জায়গাতেও চলছে একই অবস্থা। এই বেসামাল পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে তা নিয়ে স্পষ্ট করে কিছুই জানাতে পারছে না কেন্দ্র। এরই মাঝে যদি ৫০০ ও ২০০ টাকার নোট বন্ধ হয়ে যায় তবে নিঃসন্দেহে সমস্যায় পড়তে চলেছেন দেশবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here