Parul

মহানগর ডেস্ক: দেশসহ রাজ্যে এখনও সঠিক পর্যায়ে আসেনি করোনা পরিস্থিতি। যার কারণে গত বছর ২১ জুলাই ভার্চুয়াল ভাবে পালন করা হয়েছিল। এমনকি চলতি বছরও ২১ জুলাই ভার্চুয়াল ভাবে পালন করা হবে। সেটি আগেই জানিয়ে দিয়েছিল তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ads

চলতি সপ্তাহে বুধবার ২১ জুলাই। আর সেই দিনই দিল্লিতে কয়েকজন বিরোধী দলের নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। সোমবার সাংবাদিক বৈঠক করে এমনটাই জানিয়েছেন তৃণমূল রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। ২১ জুলাই এর দিনই তৃণমূলের সঙ্গে হাত মেলাতে পারে শত্রুঘ্ন সিনহা, ভাইকো এর মত কিছু নেতা।

https://twitter.com/hashtag/FarmersProtest?src=hash&ref_src=twsrc%5Etfw%22%3E#FarmersProtest%3C/a%3E

প্রসঙ্গত, চলতি বছর বিধানসভা নির্বাচনে ঐতিহাসিক জয় হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের। আর তারপরেই তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একমাত্র লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে ২০২৪ লোকসভা নির্বাচন। ইতিমধ্যেই দেশের মধ্যে মোদি বিরোধী প্রধান বিরোধী মুখ হয়ে উঠেছেন তিনি। গোটা সোশাল মিডিয়ায় একটাই লেখা ‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রী’।

ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে সেই প্রচারও। চলতি বছর বিধানসভা নির্বাচনে আগে মমতাকে সমর্থন করেছিলেন অখিলেশ যাদবও তেজস্বী যাদব। এছাড়াও দেখা গিয়েছে যে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই তৃণমূলে যোগদান করেছেন প্রাক্তন বিজেপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা। ইতিমধ্যেই দিল্লি জয় করতে পায়ের তলার মাটি শক্ত করা শুরু করে দিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২১ জুলাইকে কেন্দ্র করে জাতীয় স্তরে মোদী তথা বিজেপি বিরোধী সঙ্গে সমঝোতার বীজ বপন করতে আগামী দিনে দিল্লির রাজনীতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথা তৃণমূলের ভূমিকা আরো বেশি করে গুরুত্বপূর্ণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here