bihar flood kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিহারের রাজধানী পাটনার বন্যায় বেহাল দশা৷ সেখানকার রাস্তায় নেমেছে ৩২টিনৌকা৷ তাছাড়া রাস্তা, ঘর, হাসপাতাল জলথইথই, করছে৷এমনকী বাদ পড়েনি হাসপাতালও৷ ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, জলথইথই নালন্দা হাসপাতালে হাসপাতালের বেডে বসে রয়েছে রোগীরা৷ মাত্র তিনদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টিতে বন্যার কবলে ভেসে গিয়েছে ঘরবাড়ি, হাসপাতাল। চারিদিকে জল থইথই করছে৷ ফলে সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন জীবনে নেমে এসেছে বিপর্যয়। পাটনায় ইতিমধ্যেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের তিন হাজার জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে। রাস্তার ওপর দিয়ে চলছে নৌকা, চলছে উদ্ধারকাজ। গত কয়েকদিনে বিহারের বন্যা অবস্থা ক্রমশ ভয়াবহ আকার নিচ্ছে৷

 

বিহারের বিভিন্ন এলাকায় বন্যায় পটনায় চারজনসহ গোটা বিহারে এখনও পর্যন্ত সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। পটনাসহ অন্যান্য জেলায় “ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি”র সতর্কতা জারি করে লাল সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পটনায় ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর।রাজ্যের অন্যতম নালন্দাসহ অন্যান্য মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালগুলি ইতিমধ্যেই বন্যার কবলে। পাটনা ছাড়া সীতামারি, চম্পারন, বেগুসরাই,দ্বারভাঙ্গা ভাগলপুর সহ বিভিন্ন জেলা থেকে বন্যায় মৃত্যুর খবর আসছে৷ ক্রমশই বাড়ছে মৃত্যু মিছিল৷ আপৎকালীন পরিস্থিত সামাল দিতে ১৮টি এনডিআর এফ বাহিনী ইতিমধ্যেই ত্রাণ কাজে নেমে পড়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার রাজ্যের সব আধিকারিকদের সঙ্গে বিডিওতে যোগাযোগ রাখছেন৷ বানভাসির সংখ্যা বহু বলে জানিয়েছে প্রশাসন৷

 

বন্যার ফলে, রাস্তায় তৈরি হয়েছে ব্যাপক যানজট, গত তিনদিনে বহু ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। পাটনার বিভিন্ন জায়গায় গত দুদিনে বিদ্যুৎ পরিষেবা বিচ্ছিন্ন বলে অভিযোগ জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিহারের বাসিন্দা তথা অভিনেতা মনোজ বাজপেয়ী। এদিন সকালে তিনি ট্যুইটারে লেখেন, ব্যাপক বৃষ্টি এবং বন্যা পরিস্থিতি পটনায়। আশা করি আপনারা সবাই নিরাপদে রয়েছেন।সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে আরেকটি ভিডিওয়, দেখা গিয়েছে, বন্যা কবলিত রাস্তায় রিক্সা টানার চেষ্টা করছেন, তবে তা করতে পারায় চিৎকার করে সাহায্য চাইছেন তিনি। স্থানীয় বাসিন্দারা, যাঁরা ভিডিওটি শ্যুট করেন, তাঁদের চিৎকার করে তাঁকে নির্দেশ দিচ্ছেন।রেমন্ডের একটি শোরুমেও বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পটনায় বন্যা অপ্রত্যাশিত বলেজানিয়েছেন কে স্থানীয়রা, তাঁরা আরও বলেন, বাজার দোকান বন্ধ থাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রি কিনতে পারছেন না তাঁরা।শনিবার সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার, দ্রুত উদ্ধারকার্যের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার পর্যন্ত সমস্ত স্কুলে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here