ডেস্ক: দেশের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের এজলাসে ঢোকার উপর সম্পুর্ণরুপে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল আইনজীবী তথা পশ্চিমবঙ্গ থেকে কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ অভিষেক মনু সিংভির উপর। তবে শুধু অভিষেকবাবুই নয় নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে আরও ২ কংগ্রেস নেতা তথা বিশিষ্ট আইনজীবী কপিল সিবাল ও বিবেক তাঙ্খার উপরও। তাঁদের উপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশের আইনজীবীদের সংগঠন বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া (বিসিআই)।

সম্প্রতি দেশের প্রধান বিচারপতির অপসারণ চেয়ে ইমপিচমেন্ট মোশন এনেছে দেশের বিরোধী দলগুলি। সেই দলে রয়েছেন এই ৩ কংগ্রেস নেতা ও বিশিষ্ট আইনজীবীরা। আর ঠিক সেই কারনেই এই ৩ জনকে দেশের প্রধান বিচারপতির এজলাসে ঢোকার উপর সম্পূর্ণরুপে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বিসিআই। এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিসিআই সভাপতি মনন মিশ্র বলেন, তাঁরা কোনও আইনজীবীকে আদালতে প্র্যাকটিস করা থেকে আটকাতে পারেন না। কিন্তু সেই আইনজীবী, সাংসদ বা বিধায়ক যদি হাইকোর্ট বা সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতির উপর ইমপিচমেন্ট মোশন আনেন বা তাঁর অপসারণের জন্য সচেষ্ট হন তবে সেই বিচারপতির এজলাসে তাদের প্র্যাকটিস করার কোনও অধিকার নেই। বিসিআইয়ের বেশিরভাগ সদস্য এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছেন। তবে এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সরব হয়েছেন কংগ্রেসের ওই ৩ নেতা তথা আইনজীবী। বিসিআইকে চিঠিতে তাঁরা জানিয়েছেন এজলাসে উপস্থিত হওয়া থেকে তাদের আটকানোর অধিকার বিসিআইয়ের নেই।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতির উপর ক্ষোভ উগরে সাংবাদিক সম্মেলন করেন চার বিচারপতির। সেই ঘটনায় সাড়া দেশজুড়ে ব্যপক চাঞ্চল্য শুরু হয়। বিচারপতিদের অভিযোগ ছিল, প্রধানবিচারপতি নিজের ইচ্ছামতো বহু গুরুত্বপূর্ণ মামলা অন্য বিচারপতিদের বেঞ্চে সরিয়ে দিচ্ছেন। ঠিক তারপরেই এবার প্রধান বিচারপতিকে সরাতে উঠেপড়ে লাগল দেশের বিরোধী দলগুলি। সেই তালিকায় ছিলেন কংগ্রেসের এই তিন আইনজীবীও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here