kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মোদী সরকারের আমলে দেশের অর্থনীতির পিঠ ঠেকে গিয়েছে দেওয়ালে। একাধিক রিপোর্টে সে প্রমাণ মিললেও তাঁকে ধামা চাপা দিতে চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখছে না বিজেপি সরকার। এরইমাঝে প্রকাশ্যে চলে এই আরও এক তথ্য। জানা গেলে বিগত ৫ বছরে দেশের ২৬ তি রাষ্ট্রায়াত্ত ব্যাঙ্কের ৩ হাজার ৪০০ শাখাকে হয় বন্ধ বা মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি তথ্য জানার অধিকার আইনে উঠে এসেছে এমনই তথ্য।

সম্প্রতি সমাজকর্মী চন্দ্রশেখর গৌরের করা একটি আবেদনের প্রেক্ষিতে জিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ২০১৪-১৫ আর্থিক বছরে ৯০টি, ২০১৫-১৬ আর্থিক বছরে ১২৬টি, ২০১৬-১৭ আর্থিক বছরে ২৫৩টি, ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে ২০৮৩টি এবং ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে ৮৭৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের শাখা বন্ধ অথবা মিশিয়ে দেওয়া হয়েছে। এবং এই সময়ে রাষ্ট্রায়াত্ত ব্যাঙ্কের যতগুলি শাখাকে মিলিয়ে দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে ৭৫ শতাংশ অর্থাৎ অধিকাংশই দেশের বৃহত্তম ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্কের শাখা।

রাষ্ট্রায়াত্ত ব্যাঙ্কগুলিকে আরও শক্তিশালী করে তুলতে বড় ব্যাঙ্কগুলির সঙ্গে ছোটব্যাঙ্কগুলিকে মিলিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। যার জেরে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এসবিআই। আরটিআইয়ে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, শুধু এই ৫ বছরে এসবিআইয়ের ২,৫৬৮টি শাখা হয় বন্ধ হয়ে গিয়েছে অথবা মিশে গিয়েছে অন্য কোনও শাখার সঙ্গে। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১ এপ্রিল থেকে এসবিআইয়ের সঙ্গে মিশে গিয়েছে ৬ টি ব্যাঙ্ক। এর পাশাপাশি, চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে বিজয়া ব্যাংক, দেনা ব্যাংক এবং ব্যাংক অফ বরোদাকে একত্রিত করেছে কেন্দ্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here