news international

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কথায় বলে ‘Everything is fair in love and war’। কথাটির সত্যতা বা গভীরতা আপেক্ষিক। তবে প্রেম যে গতানুগতিক নিয়ম মেনে না, তা যুগে যুগেই প্রমাণিত। বিশেষ করে কিছু বিধি নিষেধের পোড়ো দেওয়ালের গা বেয়ে বটের লতার মতোই বেড়ে ওঠে প্রেম। একটা সময় পর্যন্ত বয়সে বড় মহিলার সঙ্গে প্রেম সমাজের সব স্তরেই বাঁকা চোখে দেখা হতো। এখন সেসব যেন অনেকটাই শিথিল।

তবে কোনও কোনও সময় এমন প্রেম কাহিনীর কথা সামনে আসে, যা শুনে এই একবিংশ শতকে দাঁড়িয়েও আমজনতাকে একটু বিষম খেতেই হয়। যেমন হয়েছে মারিনা আর ভ্লাদিমিরের ক্ষেত্রে। সম্প্রতি তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। তবে স্বামী-স্ত্রী ছাড়াও তাদের আরেকটি সম্পর্ক রয়েছে। মারিনা আদতে ভ্লাদিমিরের সৎ মা!

রাশিয়ার ক্রাশনোদার ক্রাইয়ের বাসিন্দা মারিনা বালমাসেভা। তিনি একজন সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েনসার। প্রায় দশ বছর ধরে তিনি সংসার করেছেন ভ্লাদিমিরের বাবা অ্যারের সঙ্গে। চারটি ছেলেও (দত্তক) রয়েছে তাদের। কিন্তু প্রায় এক দশক একসঙ্গে ঘর করার পর মারিনার মনে হয়েছে, তিনি মনের মানুষকে পাননি।

এসবের মধ্যেই নিজের সংসারে আসল মনের মানুষকে পান মারিনা। স্বামীর প্রথম পক্ষের সন্তান ভ্লাদিমিরের সঙ্গেই প্রণয়ের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। ভ্লাদিমির মারিনার থেকে প্রায় ১৫ বছরের ছোট। শেষমেষ মারিনা ঠিক করেন অ্যারেকে ডিভোর্স দেবেন। সেই মতোই ডিভোর্স হয় এবং একসঙ্গে আলাদা শহরে থাকতে শুরু করেন মারিনা ও ভ্লাদিমির। এই বছরের শুরুতেই বিয়ের কথা ছিল তাদের। কিন্তু করোনার কারণে তা পিছিয়ে যায়। শেষমেষ কদিন আগেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তা শেয়ার করেছেন মারিনা। ইতিমধ্যেই মারিনার গর্ভে এসেছে ভ্লাদিমিরের সন্তান। তবে মজার বিষয়, ভ্লাদিমির এখন তার ভাইদেরই সৎ বাবা বনে গিয়েছেন।

 

View this post on Instagram

 

Принимаем поздравления и лайки🙂 Не дотерпели вы до вечера и завалили директ. Видео обычное. По делам покатались и заехали в Загс 😅 Расчески не было. Кольца в машине. Зато было хорошее настроение и смущение. Мы очень какие-то лунтики на видео. Но вот так. Главное для меня не как, а за кого и с кем 🙂❤️ Вечером постараюсь залить фото в платье. Объявляю нас мужем и женой😅( мы хотели немного наряднее😅, но уже вечером)

A post shared by Марина Балмашева (@marina_balmasheva) on

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here