ডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গ, হিমাচল প্রদেশ, পঞ্জাব, বিহার থেকে নির্মান কাজের জন্য ইরাকের মসুল শহরে গিয়েছিলেন বহু শ্রমিক। বিদেশ মন্ত্রকের বহু চেষ্টা সত্ত্বেও আর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি তাঁদের। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার রাজ্যসভায় বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, ‘৩ বছর আগে ইরাকের মসুলে যে ৩৯ জন ভারতীয়কে অপহরণ করা হয়েছিল, তাঁদের হত্যা করেছে আইএসআইএস জঙ্গিগোষ্ঠী।

এদিন রাজ্যসভায় তিনি জানান, ভারতের বিভিন্ন রাজ্য থেকে যে শ্রমিকরা ইরাকে জঙ্গিদের হাতে মারা গিয়েছেন তাঁদের দেহ ভারতে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। তাঁদের শনাক্তকরণের জন্য তাঁদের ডিএনএ পাঠানো হচ্ছে পরিবারের তরফে। আরও জানানো হয়েছে, ওই ৩৯ জনের মৃতদেহ ইরাকের মসুল থেকে বাগদাদে এসে পৌছেছে। তাঁদের দেহ দেশে ফিরিয়ে আনতে বিদেশমন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী ভিকে সিং ইরাক রওনা হচ্ছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে ইরাকের মসুলে কাজের জন্য গিয়েছিলেন ওই ৩৯ জন ভারতীয় শ্রমিক। নানান অশান্তি ও জঙ্গিদের এলাকায় বাড়বাড়ন্তের কারণে মসুল থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করেন ওই ভারতীয়রা। সেই সময় তাঁদের অপহরণ করে আইএসআইএস জঙ্গিরা। প্রসঙ্গত, মৃতদের পরিবারের তরফে বিদেশমন্ত্রককে আগে জানানো হয়, ইরাকের বাদুয়া জেলে অপহরণের পর রাখা হয়েছে ওই ৩৯ জন ভারতীয়কে। দাবি করা হয়, আইএসে হাত থেকে পালাতে সক্ষম হন হরজিত নামের এক ভারতীয় যুবক। তবে সে দাবি এদিন খারিজ করে দিয়েছে বিদেশমন্ত্রক। রাজ্যসভায় এদিন সুষমা জানান, সম্প্রতি মুসুলে একটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। সেখানেই মেরে ভারতীয়দের কবর দেয় আইএস জঙ্গিরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here