নিজস্ব প্রতিবেদক, নদীয়া: আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে খেলা দেখাতে একটি রিভলভার নিয়ে নাড়াচাড়া করছিলেন যতীন রায়। কিন্তু বন্দুকটিতে গুলি ছিল ভর্তি। আর সেই বন্দুকের খেলা দেখাতে গিয়েই টেপা হয়ে যায় ট্রিগার। তারপরই করুণ পরিণতি। বন্দুকের গুলি গিয়ে সোজা লাগে পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা এক শিশুর মাথায়। মুহূর্তের মধ্যে নেমে আসে অন্ধকার। এক লহমার ভুলে শেষ হয়ে যায় একরত্তি প্রাণ।

নদিয়ার হাসখালি থানার গ্যারাপোতায় এভাবেই গুলিবিদ্ধ মৃত্যু হল সাড়ে চার বছরের এক শিশুকন্যার। মৃতা শিশুটির নাম ঈশিতা মজুমদার। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, খেলার ছলে যতীন রায় নামে এক প্রতিবেশী রিভালবার দেখাতে গিয়ে ট্রিগারে হাত পরে যায় এবং গুলি বেরিয়ে যায়। গুলি গিয়ে লাগে সোজা ঈশিতার মাথায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ঈশিতার। ঘটনার খবর পেয়ে অভিযুক্ত যতীন রায়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সূত্রের খবর, প্রতিবেশী যতীন রায় তাঁর সেই রিভলভারটি লুকিয়ে রেখেছিল ঈশিতাদের বাড়িতেই। সে যখন রিভলভারটি নিয়ে আসতে যায় তখনই ঈশিতাকে খেলা দেখাতে গিয়েই এই ঘটনা ঘটে। ঘাতক অস্ত্রটি বাজেয়াপ্ত করার পাশাপাশি এই ঘটনার পিছনে অন্য কোনও উদ্দেশ্য রয়েছে কিনা তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে যতীন রায় কেন সেই রিভলভার নিজের কাছে রেখেছিল এবং কোথা থেকেই বা তাঁর কাছে বন্দুক ও আগ্নেয়াস্ত্র এল তা ভাবাচ্ছে পুলিশকে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here