news national

মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রায় এক মাস হয়ে গেল গোটা দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। করোনাভাইরাস রুখতে এটাই সবচেয়ে বড় পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় সরকারের। কিন্তু এই পদক্ষেপের জেরে অর্থনৈতিক অবস্থা শোচনীয় হচ্ছে। তার কারণ, বন্ধ হয়ে গিয়েছে বিভিন্ন পরিষেবা। মানুষের চাকরি হারানোর শঙ্কা তো রয়েছেই পাশাপাশি কার্যত বন্ধ হয়ে যাওয়ার মুখে দেশের ৪০ শতাংশ রেস্তোরাঁ। কেন্দ্রীয় সরকার যদি দ্রুত কোন আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা না করে তাহলে অবস্থা শোচনীয় হয়ে যাবে।

হিসেব করে দেখা গিয়েছে, আর্থিক সাহায্য ঘোষণা না হলে দেশের প্রতি ১০ রেস্তোরাঁর মধ্যে ৪টি বন্ধ হয়ে যাবে। সব মিলিয়ে মোট ৪০ শতাংশ রেস্তোরাঁ বন্ধের মুখে। লকডাউন কার্যকরী হওয়ার আগে দেশের সব রেস্তোরাঁর মোট ব্যবসার পরিমাণ ছিল প্রায় ৪ লক্ষ কোটি টাকা। এখন তারা বিপুল পরিমাণে লোকসান করছেন। একই সঙ্গে, এই সমস্ত রেস্তোরাঁয় কাজ করা ব্যক্তিদের সংখ্যা ছিল কমপক্ষে ৭০ লক্ষ। কিন্তু এখন অধিকাংশই কাজ হারা।

ন্যাশনাল রেস্তোরাঁ অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার দাবি, লকডাউন এবং করোনাভাইরাসের জেরে ফুড ডেলিভারীর ব্যবসা ৭০ শতাংশ কমে গিয়েছে। লকডাউন কার্যকর হওয়ার প্রথম দিন থেকে রেস্তোরাঁগুলি তো এমনিতেই বন্ধ। তারা মনে করছেন, লকডাউন উঠে গেলেও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে আরো বেশকিছু সময় লেগে যাবে। ততদিনে রেস্তোরাঁ ব্যবসায় কোন উন্নতি হবে না। এই প্রেক্ষিতে কর্মী ছাঁটাই এবং বেতন কমানোর দিকেই প্রবণতা বাড়বে রেস্তোরাঁ সংস্থাগুলির।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here