national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ভারতে করোনার হানাদারিতে আতঙ্কিত গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৩। আক্রান্ত সন্দেহে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়েছে শতাধিক মানুষকে। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই করোনা আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা ৫ ব্যক্তি পালিয়ে গেল হাসপাতাল থেকে। শুক্রবার মধ্যরাতে ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের নাগপুর জেলায়। পরিস্থিতি গুরুতর তা আঁচ করে এবার গোটা শহরে হাই অ্যালার্ট জারি করেছে সরকার।

জানা গিয়েছে, নাগপুরের ইন্দিরা গান্ধী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিল ৫ জনকে। এদের মুখের লালা পরীক্ষা করতেও পাঠানো হয়েছিল হাসপাতালের তরফে। তবে আতঙ্কিত ওই ৫ ব্যক্তিই পালিয়ে যায় শুক্রবার গভীর রাতে। বিষয়টি নজরে আসার পরই নড়েচড়ে বসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এই ঘটনা বড়সড় বিপদ ডেকে আনতে পারে আশঙ্কা করেই গোটা শহরে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ওই ৫ জনের মধ্যে যদি কেউ করোনা আক্রান্ত হন সেক্ষেত্রে তাঁর থেকে আরও বহু মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে এই ভাইরাস। তবে পুলিশ যেভাবে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে তাতে খুব বেশিদূর পালাতে পারবে না ওই ৫ জন।

উল্লেখ্য, গত ১২ মার্চ ৪৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তি প্রথম করোনা আক্রান্ত হন মহারাষ্ট্রে। তবে এই কয়েকদিনের মধ্যে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭ জন। এর মধ্যে পুনেতে আক্রান্ত ১০ জন। মুম্বই ও নাগপুরে ৩ জন করে আক্রান্ত। এহেন পরিস্থিতির জেরে ইতিমধ্যেই আতঙ্কের ছায়া নেমেছে বাণিজ্য নগরীতে তারমাঝেই এবার হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেল ৫ করোনা সন্দেহভাজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here