ডেস্ক: কৃষক আন্দোলনে জেরবার মধ্যপ্রদেশ, এরই মাঝে ফের অশনি সংকেত দেখল মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। মধ্যপ্রদেশের সরকারি হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তারদের ভাতাবৃদ্ধি সহ একাধিক দাবিতে একযোগে পদত্যাগ করলেন ৫০০ জন জুনিয়র ডাক্তার। মঙ্গলবার মধ্যপ্রদেশের পাঁচটি সরকারি হাসপাতালে ঘটা এই ঘটনায় গোটা রাজ্যের হাসপাতাল পরিষেবা এবার লাটে ওঠার জোগাড়।

এদিকে যখন কলকাতা মেডিকেল কলেজে হস্টেল সমস্যা সমাধানের ইঙ্গিত পেয়ে সদ্য অনশন তুলেছেন ছাত্রছাত্রীরা। ঠিক তখনই প্রতিবাদে নামল মহারাষ্ট্রের ছাত্রছাত্রীরা। জুনিয়র ডাক্তার সংগঠন ডা জেইউডিএর রাজ্য সভাপতি সচেত সাক্সেনা এদিন সাংবাদিকদের জানান, ভাতা বৃদ্ধি, স্নাতকোত্তর কোর্সের পরীক্ষার জন্য মধ্যপ্রদেশ মেডিক্যাল সায়েন্সের নির্দিষ্ট করে দেওয়া অতিরিক্ত ফি কমানো, হস্টেলরুমের ভালো পরিবেশ, হাসপাতালের উন্নত পরিকাঠামো, ডিপ্লোমা প্রার্থীদের জন্য সিনিয়র রেসিডেন্টশিপ, সবসময় ক্যান্টিন পরিষেবা এবং মারমুখী রোগীর আত্মীয়দের হাত থেকে নিরাপত্তার দাবিতে সোমবার অবস্থান বিক্ষোভে বসেছে রেওয়ার সঞ্জয় গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতাল এবং ভোপালের গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতাল, জবলপুর, ইন্দোর এবং গোয়ালিয়রের মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল। দাবি না মেটা পর্যন্ত, তাঁদের সব সহপাঠীরা এখন থেকে আর কোনও ক্লাসে যোগ দেবেন না, হস্টেলের ঘরও খালি করে দেবেন।

জেইউডিএর দাবি, প্রতি মাসে জুনিয়র ডাক্তারদের ভাতা দিতে হবে, প্রথম বর্ষের পড়ুয়াদের জন্য ৫ হাজার টাকা, দ্বিতীয় বর্ষের জন্য ৬৭ হাজার টাকা, তৃতীয় বর্ষের স্নাতকোত্তর পড়ুয়াদের জন্য ৬৯ হাজার টাকা এবং ইন্টার্নদের জন্য দিতে হবে ২০ হাজার টাকা। রাজ্য সরকার যতদিন না দাবি মানবে ততদিন নিজেদের দাবিতে অনড় থাকবে তাঁরা। এবিষয়ে সোমবার প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকেও বসেছিল তাঁরা। কিন্ত সরকারের তরফে তাঁদের দাবি না মানা হলে মঙ্গলবার একযোগে পদত্যাগ করে ৫০০ জুনিয়র ডাক্তার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here