2000 bengali news

Highlights

  • নোটবন্দির পরে ৫৬ শতাংশ জাল ২ হাজারের নোটের ভারতীয় বাজারে প্রবেশ
  • জানিয়েছে এনসিআরবি রিপোর্ট
  • মোদীর দাবি নিয়ে বিরোধীদের প্রশ্ন

মহানগর ওয়েবডেস্ক:  ন্যাশনাল ক্রাইম রিপোর্ট ব্যুরো(এনসিআরবি)র সাম্প্রতির প্রতিবেদন অনুসারে নোট বাতিলের পরেই ৫৬ শতাংশ জাল ২০০০ টাকার নোট বাজারে ঢুকেছে৷অথচ নোট বাতিলের সময়  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাবি করেছিলেন এর ফলে দেশে কালোটাকার আমদানি কমবে৷ সেই সঙ্গে তাঁর দাবি ছিল কালো টাকা আটকানো গেছে৷ তবে তাঁর কথা যে ভুল তা প্রমাণ করল সরকারি এই প্রতিবেদন৷

এনসিআরবি-র রিপোর্ট বলছে নোটবাতিলের ৩ মাসের মধ্যে ৫৬ শতাংশ দুহাজার টাকার জাল নোট উদ্ধার করা হয়েছে। অথচ মোদী দাবি করেছিলেন নতুন ২০০০ টাকা এবং ৫০০ টাকার নোটে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি করায় সেটা নকল করা সম্ভব হবে না। তাই জাল নোট ছাপানো বন্ধ হবে। জাল নোটের যে সমান্তরাল ব্যবস্থা চলছে দেশে সেটা বন্ধ হবে বলে দাবি করেছিলেন তিনি। তারপরেও এই বিপুল পরিমান জাল নোট বাজারে ছড়াল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

মোদীর সুদিনের  নমুনা ক্রমশ প্রকাশ্য৷ এই প্রতিবেদনে বিরোধীদের কটাক্ষ৷ ২০১৭-২০১৮ সালের মধ্যে উদ্ধার হয়েছে এই বিপুল পরিমান ২০০০ টাকার জাল নোট। এর মধ্যে আবার সবচেয়েবে বেশি জাল ২০০০ টাকার নোট উদ্ধার হয়েছে গুজরাট থেকে। প্রায় ৬.৯৩ কোটি টাকার জাল নোট উদ্ধার হয়েছে এখান থেকে। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গ(৩.৫ কোটি টাকা ), তামিলনাড়ু (২.৮ কোটি টাকা) এবং উত্তর প্রদেশ(২.৬ কোটি টাকা) থেকে উদ্ধার হয়েছে জালনোট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here