মহানগর ওয়েবডেস্ক: মাত্র দেড় মাস আগেই নিজামুদ্দিনে তাবলিগ ই জামাতের ধর্মীয় সভা থেকে করোনা সংক্রামিত হয়েছিলেন বহু মানুষ। ভারতে প্রথম করোনা হটস্পট ছিল এই নিজামুদ্দিন। কিন্তু সেই ঘটনা থেকেও শিক্ষা নেয়নি একটা অংশ। পঞ্জাবে তীর্থ থেকে ফিরে করোনা আক্রান্ত ৭৬ জন। মোট ৩০০ জনের মধ্যে এই ৭৬ জন আপাতত আক্রান্ত। তবে সংখ্যাটা বাড়বে বলেই আশঙ্কা।

ওই ৩০০ ব্যক্তি হাজুর সাহিব গুরুদ্বারা থেকে ফিরেছিলেন। মহারাষ্ট্রের নান্দেদে ওই গুরুদ্বারা শিখদের কাছে পবিত্র। সেখান থেকেই সম্প্রতি ফেরানো হয় ৩০০ জনকে। সূত্রের খবর, কয়েকদিনের মধ্যেই আরও ৪০০০ জনকে পঞ্জাবে ফেরানো হবে। কিন্তু তাদের আগে করোনা টেস্ট করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

চলতি সপ্তাহের শুরুতেই গুরুদ্বারা থেকে ফেরত আট জনের শরীরে করোনা মেলে। কিন্তু কয়েকদিনের মধ্যেই সেই সংখ্যাটা বেড়ে ৭৬ হয়ে গিয়েছে। এই প্রসঙ্গে পঞ্জাবের মেডিক্যাল এডুকেশন ও রিসার্চ মন্ত্রী ওম প্রকাশ সোনি জানান, ‘আমরা বুঝতে পারিনি যে এত মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে যাবেন। সকল পুণ্যার্থীদের পরীক্ষা করা হবে। করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমরা জয়ী হবই।’

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার এই ৭৬ জন ধরা পড়ায় একদিনে পঞ্জাবে মোট ১০৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা একলাফে বেড়ে হয়েছে ৪৮৯। এদের মধ্যে ৩৬৫ জন এখনও চিকিৎসাধীন। ১০৪ জন সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন ও ২০ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here