নিজস্ব প্রতিবেদক, কোচবিহার: কথাতেই আছে পেটের দায় বড় দায়। আর সেই পেটের জ্বালা মেটাতেই নিজের শিশু কন্যাকে বিক্রি করলেন এক মা। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার শহরের ১৮ নং ওয়ার্ডে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

সূএের খবর, নিজের শিশুকে মাত্র ২০হাজার টাকাতে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল মায়ের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ওই মায়ের নাম লক্ষ্মী রায়। অভিযোগ, ওই এলাকারই অন্য এক মহিলার সাহায্য নিয়ে শিশুটিকে বিক্রি করে লক্ষ্মী। কিন্তু সমস্যা দাঁড়ায় টাকার গণ্ডগোল। তার জেরেই পর্দা ফাঁস এই ঘটনার। জানা গিয়েছে, ওই মহিলা ৫০ হাজার টাকায় শিশুটিকে বিক্রি করে এক ব্যক্তির কাছে। সেখান থেকে শিশুটির মাকে দেওয়া হয় ২০ হাজার টাকা। আর এখানেই বাধে সমস্যা, শিশু বিক্রির পর তাকে কম টাকা দেওয়া হয়েছে এই অভিযোগ তুলে দুজনের মধ্যে বাধে বচসা।

ঘটনার কথা জানাজানি হওয়ার পর চারপাশে ভিড় জমে লোকজনের। ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় ওই এলাকায়। পুলিশে খবর যাওয়ার কিছুক্ষনের মধ্যেই ঘটনাস্থলে আসে কোচবিহার কোতওয়ালি থানার পুলিশ। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। সত্যি কি পেটের দায়ে নিজের সন্তান কে বিক্রি করে দিল ওই মা? নাকি অন্যকিছু? এর পিছনে বড়সড় শিশু পাচার চক্রের হাতও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ। ঘটনার তদন্তে নেমে অভিযুক্ত ওই মাকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশের কাছে ওই মহিলার দাবি এই কাজ তিনি নিজে করেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here