ডেস্ক: দিল্লির NSG দফতরে চাঞ্চল্যকর ফোন নিয়ে হইহই অবস্থা৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপর হতে পারে রসায়নিক হামলা৷ এমনই বিস্ফোরক ফোন আসে ন্যাশন্যাল সিকিউরিটি গার্ডের সদর দফতরে৷ এমন ফোনে খুব স্বাভাবিকভাবেই দুশ্চিন্তায় পড়ে যান NSG কর্তারা। দেরি না করে তৎক্ষণাৎ শুরু হয়ে যায় তল্লাশি৷ ফোনের লোকেশন ট্রেস করা হয়৷ জানা যায় ফোনটি এসেছিস মুম্বই থেকে৷ অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়েছে অপরাধীও৷

ঘটনাটি অবশ্য দিন তিনেক আগেকার৷ গত ২৭ জুলাই এই কাণ্ডটি ঘটিয়েছিল বছর বাইশের এক যুবক৷ জানা গিয়েছে তার নাম কাশীনাথ মণ্ডল৷ সে ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা৷ তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে কোনওভাবে ওই যুবক দিল্লির NSG দফতরের ফোন নম্বর পায়৷ এরপরই সে এমন চাঞ্চল্যকর ফোনটি করে বসে৷ নম্বর ট্রাক করে NSG জানতে পারে মুম্বই থেকে এসেছিল ফোনটি৷ ততক্ষণাৎ সেখানকার পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়৷ পুলিশ তদন্তে নেমে ডিবি মার্গ থানার পুলিশ মুম্বই সেন্ট্রাল থেকে গ্রেফতার করে কাশীনাথকে৷ মুম্বই সেন্ট্রাল থেকে সুরাটের ট্রেনে ওঠার মুহূর্তেই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ৫০১ এবং ১৮২ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, কাশীনাথ মণ্ডল ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা হলেও মুম্বইয়ে ওয়াকেশ্বর এলাকায় থাকত। তবে সে ঠিক কী কারণে সেখান থাকত, তা এখনও স্পষ্ট নয়৷ জেরায় অবশ্য চাঞ্চল্যকর একটি তথ্য উঠে এসেছে৷ অভিযুক্ত কাশীনাথ পুলিশকে জানিয়েছে, সম্প্রতি ঝাড়খণ্ডে এক নকশাল হামলায় মৃত্যু হয়েছে তার এক বন্ধুর। সেই কারণেই সে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এমন ফোন সে তা নিয়ে এখনও ধন্দে রয়েছেন তদন্তকারীরা৷ প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পেয়ে নিছকই হাতাশা থেকে এই ফোন, নাকি অন্য কোনও অভিসন্ধি ছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here