international news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নোভেল করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে বাঁচতে চিনের পুলিশের জন্য এলো স্মার্ট হেলমেট। প্রাণঘাতী ভাইরাসের ভয়ে চিনের সাধারণ মানুষ ঘরে ঢুকে থাকলেও পুলিশ কর্মীদের রেহাই নেই। তাদের সদা সর্বদা মোতায়েন থাকতে হচ্ছে রাস্তাঘাটে। তাই ভাইরাসের হাত থেকে পুলিশকর্মীদের রক্ষা করতে এল উন্নত প্রযুক্তির স্মার্ট হেলমেট। এই হেলমেট পড়লে পুলিশ কর্মীরা সহজেই বুঝতে পারবেন কে এই ভাইরাসে আক্রান্ত। তাই মাস্ক তো রয়েছেই সঙ্গে তারা পরে রয়েছেন এই স্মার্ট হেলমেট।

কী এমন রয়েছে এই হেলমেটে যার মাধ্যমে সাবধান হয়ে যেতে পারবে পুলিশ? এর মধ্যে এমন উন্নত ডিভাইস রয়েছে যার মাধ্যমে হেলমেটের সামনের কাঁচে উঠে যাবে সামনে থাকা কোনও মানুষের দেহের তাপমাত্রা কত? এছাড়াও এই হেলমেটে রয়েছে এমন এক ধরণের অ্যালার্ম যেটি বেজে উঠবে যখন পুলিশ কর্মীর ১৬ ফুট রেডিয়াসে এমন কোনও ব্যক্তি আসবে যে জ্বরে আক্রান্ত। যার ফলে তৎক্ষণাত পুলিশ কর্মী সতর্ক হয়ে যেতে পারবে যে ওই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হলেও হতে পারে।

এছাড়াও এই হেলমেটে এমন প্রযুক্তি রয়েছে যার মাধ্যমে সামনে আসা কোনও ব্যক্তির মুখাবয়বের স্ক্যান করে দ্রুত তার পরিচয় ও তার সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য দিতে সক্ষম হবে এই হেলমেটটি। রাস্তায় যে কোনও ব্যক্তির ‘ফেসিয়াস- রেকগনেশনের’ মাধ্যমে হেলমেটের সামনের কাঁচে ভেসে উঠবে তার যাবতীয় তথ্য। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই স্মার্ট হেলমেট নিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে। চিনের চেংদুতে পুলিশ কর্মীরা ইতিমধ্যেই এই হেলমেটের ব্যবহার শুরু করে দিয়েছে। সেনযান প্রদেশে হংকং বা অন্য কোনও জায়গা থেকে আসা গাড়ির চালক ও অন্যান্য মানুষদের এই হেলমেটের মাধ্যমেই পরীক্ষা নীরীক্ষা করা হচ্ছে।

এছাড়াও আরও একটি গুণ রয়েছে এই উন্নত প্রযুক্তি সম্পন্ন ডিভাইসটির। এটি মাত্র দু মিনিট সময়ে প্রায় ১০০ মানুষের দেহের তাপমাত্র স্ক্যান করে নিতে পারে বলে জানা গিয়েছে। এই স্মার্ট ডিভাইসটি তৈরি হয়েছে চিনের কুয়াং-সি প্রদেশের একটি প্রযুক্তি সংস্থায়। এটির নাম রাখা হয়েছে ‘স্মার্ট হেলমেট এন৯০১’। এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিনে মৃত্যু হয়েছে ৩০০০ মানুষের। ৩৮২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে গোটা বিশ্বে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here