grand

মহানগর ওয়েব ভেস্ক: গ্র্যান্ড ক্যানিয়নে ছবি তুলতে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে জনৈক পর্যটকের। ম্যাকাওয়ের নাগরিক ওই পর্যটকের’ নামধাম জানা যায়নি। গ্র্যান্ড ক্যানিয়নের ঈগল পয়েন্ট-এর কাছে স্কাইওয়াক থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, ছবি তুলতে গিয়ে অসাবধানতাবশত পা পিছলে গভীর খাদে পড়ে গেলে অকুস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর।

আমেরিকার অ্যারিজোনায় রহস্যময় এই ঈগল পয়েন্টে স্কাইওয়াকের জন্য রয়েছে স্বচ্ছ ও পুরু কাচে তৈরি গোলাকার ঝুলন্ত সেতু। এটি মূলভূমি থেকে ইংরেজি ডি-এর আকারে ৭০ ফুট দূরে ঘুরিয়ে নির্মিত। গিরিখাতের তল থেকে ৪ হাজার ফুট উঁচুতে। এর প্রায় একমাইল নিচে দিয়ে বয়ে গিয়েছে কলোরাডো নদী। সেখানে ব্যাগ নিয়ে যেতে দেয় না, ব্যাগ রাখার ব্যবস্থা আছে। স্কাইওয়াকের সময় ছবি তোলা নিষিদ্ধ। তা সত্ত্বেও কী করে ওই পর্যটক ক্যামেরা নিয়ে গেলেন, তা নিয়ে ধন্দে কর্তৃপক্ষ।

আমেরিকার অ্যারিজোনা রাজ্যের উত্তরে প্রায় ২০০ কোটি বছরের ইতিহাসের সাক্ষী গিরিখাতের নাম গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন। এই গিরিখাত দৈর্ঘ্যে প্রায় ২৭৭ মাইল, প্রস্থে সর্বোচ্চ ১৮ মাইল এবং সর্বোচ্চ গভীরতা ১ মাইলেরও বেশি। গিরিখাতের মধ্যে দিয়ে প্রায় ১৭০ লক্ষ বছর ধরে বয়ে চলা কলোরাডো নদী গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন সৃষ্টির প্রধান উৎস। খরস্রোতা কলোরাডোর জলস্রোত এবং ভূমিক্ষয়ের কারণে বর্তমান চেহারা নিয়েছে গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন। এছাড়াও বহুবছর ধরে বৃষ্টি, বাতাস, ভূমিকম্পের ফলে অদ্ভুত সুন্দর পাহাড়গুলো তৈরি হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here