ডেস্ক: সড়ক পথে নিয়ে আসা হচ্ছে পাইলট অভিনন্দন বর্তমান’কে। প্রথম দিকে তাঁকে আকাশ পথে নিয়ে আসার কথা থাকলেও, শেষ মুহুর্তে পরিকল্পনায় পরিবর্তন করা হয়। বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ পাকিস্তান সীমান্তে পৌঁছান ভারতের ‘বীর যোদ্ধা’ অভিনন্দন।

উল্লেখ্য, বিকেলের এই সময়টিতেই ওয়াঘাতে সৌজন্যে বিনিময়ে মিলিত হন দুই দেশের সেনা। ঠিক সেই সময়েই ভারতে নিয়ে আসা হল পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে। পাকিস্তান সেনার হেফাজতে প্রায় ৫৪ ঘণ্টা থাকার পর মুক্তি দেওয়া হচ্ছে তাঁকে। যদিও অভিনন্দন ঠিক কখন আসবেন সেই নিয়েও চলে চাপানউতোর। পাকিস্তানের তরফ থেকে প্যারেড করার পর ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয় তাঁকে। দেশবাসীর পাশাপাশি ওয়াঘা সীমান্তেও উপস্থিত ছিলেন সাধারণ থেকে সেনা বাহিনীর আধিকারিকরা। ব্যবস্থা করা হয়েছিল ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থার। ছেলেকে নিতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন অভিনন্দনের বাবা। অভিনন্দন বর্তমানের আসার খবর পাওয়ার পর থেকেই ওয়াঘা সীমান্তে জয় ধ্বনি দিতে শুরু করেন উপস্থিত উৎসুকরা। দেশের ‘নায়ক’কে এক ঝলক দেখার জন্য ভিড় জমিয়েছিলেন অনেকেই। সাধারণের চোখ ছিল টেলিভিশনের পর্দাতেও।

প্রসঙ্গত, ভারতের তরফ থেকে এয়ার স্ট্রাইক করার পর থেকে দুই দেশের মধ্যে তৈরি হয় যুদ্ধের বাতাবরণ। দু’পক্ষের মধ্যেই শুরু হয় গুলি বিনিময়। এরই মধ্যে পাক সেনাদের হাতে ধরা পড়েন অভিনন্দন বর্তমান। তাঁকে দেশের মাটিতে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য পাক সরকারের উপর চাপ তৈরি করতে থাকে ভারত সরকার। ভারতের পাশে এসে দাঁড়ায় আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ইসরায়েল, চিনের মতো দেশ। শেষমেশ চাপের মুখে নতি স্বীকার করে পাকিস্তান। ভারতের মাটিতে পা রাখেন অভিনন্দন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here