kolkata bengali news

ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আচ্ছে দিন বোধহয় এটাই। ভরতুকিযুক্ত রেশন পেতে হলে গ্রামের মানুষকে মাসে খরচ করতে হয় ৬০ হাজার টাকা! অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি। আর নির্বাচন বলেই নিদারুণ এই সত্যিটা প্রকাশ্যে এসে পড়েছে। ওই অঞ্চলে ভোটের প্রচারে গিয়ে অস্বস্তিতে পড়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, বিজেপি নেতা কিষান কাপুর। গ্রামের গরীব মানুষ তাঁকে চেপে ধরেছেন। সুযোগ পেয়েছেন, তাঁদের সমস্যার কথা বলেছেন।ফলে নগ্ন এই সত্যিটা প্রকাশ হয়ে গিয়েছে।

সূত্রের খবর, হিমাচলপ্রদেশের ছাম্বা জেলার বাকলহ গ্রামে ২০০ রেশন গ্রাহক আছেন। গ্রাম থেকে রেশন দোকানের দূরত্ব তিন কিলোমিটার। রেশন আনতে গেলে একজন গ্রাহকের ৩০০ টাকা ট্যাক্সি ভাড়া দিতে হয়। এর অর্থ ২০০ গ্রাহকের রেশন ধরতে খরচ হয় ৬০ হাজার টাকা। জানা গিয়েছে, গত একবছর বাকলহ গ্রামের মানুষ এই সমস্যায় ভুগছেন। সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়ছেন বৃদ্ধ-বৃদ্ধা, বিধবা ও অসুস্থ মানুষ। বাকলহ বাজারে রেশন দোকান খোলার চেষ্টা চালিয়েছেন এক্সসার্ভিসম্যান জিতেন্দ্র রানা। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন। তিনিও বিজেপির লোকসভা প্রার্থীকে সামনে পেয়ে রেশন দোকানের সমস্যা নিয়ে তাঁর সঙ্গে কথা বলেন। টিএনএনকে রানা জানান, সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে বলে বিজেপি নেতা তাঁকে আশ্বাস দিয়েছেন। পাশাপাশি, ৮০ বছরের এক বৃদ্ধ ইন্দর সিং বলেন, আমার আর্থিক অবস্থা ভাল নয়। তিন কিলোমিটার দূরে রেশন ধরতে যাওয়ার মতো বাড়িতে কেউ নেই। একবার যেতেই ৩০০ টাকা ভাড়া লাগে।

ভুক্তভোগী ৭৮ বছর বয়সের বিধবা তারা দেবীও। তিনি ৩০ জন মহিলাকে সঙ্গে নিয়ে মন্ত্রী তথা বিজেপির লোকসভার প্রার্থীর সঙ্গে দেখা করেন। এই সমস্যা নিয়ে কথা বলেন। তাঁর আশা, এবার এই সমস্যা মিটে যাবে।
অন্যদিকে, তাঁর সঙ্গে বাকলহ গ্রামের মানুষ দেখা করেছেন জানিয়ে বিজেপি প্রার্থী কিষাণ কাপুর বলেন, যত দ্রুত সম্ভব এই সমস্যার সমাধান করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here