নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্যারাকপুর: পথ দুর্ঘটনায় সাত সকালে এক স্কুল ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর মহকুমার টিটাগড় থানার বারাকপুর-বারাসাত রোডের শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। মৃত ওই ছাত্রীর নাম অনু দাস(৪)। জানা গিয়েছে, বারাসাত কমলপুর রুটের একটি বেসরকারি বাস বারাসাত থেকে কমলপুর আসার পথে সাইকেল আরোহী ওই শিশু ও তার মাকে ধাক্কা মারলে সাইকেল নিয়ে তারা ব্যারাকপুর-বারাসাত রোডের উপর পড়ে যান। তখনই ওই বেসরকারি বাসের পিছনের চাকায় পিষ্ট হয়ে যায় শিউলি গার্লস নার্সারি স্কুলের ছাত্রী অনু দাস। রক্তাক্ত অবস্থায় বাসের তলা থেকে ওই স্কুল ছাত্রীকে স্থানীয়রা শিউলি গ্রাম পঞ্চায়েতের অ্যাম্বুলেন্সে করে বারাকপুর বিএনবসু মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওই হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। এই ঘটনায় সাইকেল থেকে পড়ে সামান্য জখম হন ওই শিশুর মা মনিমালা দাস।

এদিকে শিশু মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়তেই স্থানীয়রা ঘাতক বাসটি আটকে তাতে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। ঘাতক বাসের চালককেও ধরে ফেলে এলাকাবাসী। তাকে টিটাগড় থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয় উত্তেজিত জনতা। এদিকে এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে ব্যারাকপুর-বারাসাত রোডে সাময়িক যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে উত্তেজনা নিয়ন্ত্রনে আনতে র‍্যাফ নামে এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নার্সারি স্কুলের ওই ছাত্রীর বৃহস্পতিবার অঙ্ক পরীক্ষা ছিল। সে তার মায়ের সঙ্গে সাইকেলে চড়ে পরীক্ষা দিতে যাচ্ছিল। সেই সময় ব্যারাকপুর-বারাসাত রোডে এই মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত ওই স্কুল ছাত্রীর বাড়ি ব্যারাকপুরের দেবপুকুর অঞ্চলে বলে জানা গেছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে টিটাগড় থানার পুলিশ। ওই শিশুর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ব্যারাকপুর মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘাতক বাসের চালককে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে টিটাগড় থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here