kolkata news

Highlights

  • বাইরে থেকে রাজ্যে অস্ত্র ও টাকা নিয়ে ঢুকছে দুষ্কৃতীরা
  • পুলিশের দিকেও অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা পুলিশমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
  • এবার নাকা চেকিংয়ে আটক হল ‘পুলিশ’ স্টিকার লাগানো একটি গাড়ি

নিজস্ব প্রতিনিধি, নদিয়া: বাইরে থেকে রাজ্যে অস্ত্র ও টাকা নিয়ে ঢুকছে দুষ্কৃতীরা। রাজ্যে অশান্তি পাকানোর চেষ্টা চলছে। গত বুধবার নদিয়ার কৃষ্ণনগরে প্রশাসনিক বৈঠকে নাম না করে বিজেপির দিকে আঙুল তোলার পাশাপাশি রাজ্য পুলিশের দিকেও অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা পুলিশমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি বলেন, রাস্তার মানুষজনকে হ্যারাস করা পুলিশের কাজ নয়, পুলিশের কাজ মানুষকে ভালভাবে দেখা। দেবগ্রাম, পলাশিপাড়া নিয়ে অনেক অভিযোগ তাঁর কাছে এসেছে। তাই ভাল করে পুলিশকে নাকা চেকিং বাড়ানোর নির্দেশের পাশাপাশি ভিনরাজ্য থেকে অনুপ্রবেশকারীরা আর্মস নিয়ে এসে অশান্তি করে যাচ্ছে। এগুলির দিকে ভালভাবে নজরদারি রাখতে হবে পুলিশকে নির্দেশ দেন মমতা।

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মতো অবৈধ এবং বেআইনি কাজ রুখতে পুলিশ এবার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে শুরু করল নাকা চেকিং। আর সেই নাকা চেকিংয়ে আটক হল ‘পুলিশ’ স্টিকার লাগানো একটি গাড়ি। গত বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নদিয়ায় বিভিন্ন দফতরের আধিকারিকদের নিয়ে কৃষ্ণনগর রবীন্দ্র ভবনে এক প্রশাসনিক বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন পুলিশ, প্রেস স্টিকার এবং লালবাতি লাগিয়ে অনেক বেআইনি কাজ হচ্ছে।

এমনকী তিনি উল্লেখ করেন, সম্প্রতি লালবাতি লাগানো গাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র এবং গাঁজা। তিনি পুলিশ আধিকারিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, জেলার সাংবাদিকদের আপনারা চেনেন। অন্য কেউ সাংবাদিক নয় অথচ প্রেস স্টিকার গাড়ি নিয়ে ঘুরে কোনও অপরাধমূলক কাজ করছে, সেইগুলো লক্ষ্য করতে হবে। তিনি আরও বলেন, নাকা চেকিং যেমন বাড়াতে হবে, তেমনই নাকা চেকিংয়ের নামে কোনও মানুষকে যেন হয়রানি না করা হয়। যদি এই ধরনের খবর তাঁর কাছে আসে, তিনি যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ পাওয়ার পর নড়েচড়ে বসে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে ডিএসপি (ডি অ্যান্ড টি) মাকসুদ হাসান এবং নাকাশিপাড়া থানার ওসি রাজা সরকার-সহ অন্যান্য পুলিশ কর্মীরা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে নাকা চেকিং শুরু করেন। আর তাতেই এই পুলিশ স্টিকার লাগানো গাড়ি আটক করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here