soohini sarkar

মহানগর ডেস্ক: বুধবার সকাল থেকেই চার দিকে চাপা গুঞ্জন! বিকেল ৪টে পর্যন্ত তর সইছিল না কারও। টলি-পাড়ার কোন কোন শিল্পী যোগ দিচ্ছেন গেরুয়া শিবিরে, সেই নিয়ে প্রশ্নের ছড়াছড়ি চারদিকে। নেটমাধ্যম জুড়ে নানা জল্পনায় জর্জরিত টলিউডের কয়েক জন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। বিশেষ করে তাঁরা, যাঁরা আদপেই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা মাথাতেও আনেননি। তাঁর মধ্যে রয়েছেন অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ, সোহিনী সরকার প্রমুখ। সন্ধ্যেবেলা যখন বিজেপিতে যোগ দেওয়া তারকাদের তালিকা সামনে আসার পরেই ফেসবুকে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন সোহিনী। সেই ভিডিয়ো বার্তাতেই এখনই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা সম্পূর্ণ নস্যাৎ করে দেন তিনি।
ফেসবুকের মাধ্যমেই তিনি তাঁর কথা আপামর দর্শককুলের সামনে তুলে ধরেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার রাত থেকে জ্বরে ভুগছেন। শরীর ভাল নেই। সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়েছে। কিন্তু ওঠার পরে তিনি স্তম্ভিত। ফোনে অন্তত ২৫টা কল এসেছিল, যা তিনি ধরতে পারেননি। কারণ বুঝতে পারার পর থেকে তিনি নিজেও ধোঁয়াশায়। তাঁর মনে এই একই প্রশ্ন ঘোরাফেরা করছে, ‘আমার সঙ্গে বিজেপি-র নাম জড়াল কী ভাবে!’
অভিনেত্রী তাঁর পেশা নিয়ে ব্যস্ত। একের পর এক ছবির নাম তাঁর ক্যালেন্ডারে। গত মাসে মন্দারমণিতে অনির্বাণ ভট্টাচার্য পরিচালিত ছবি ‘মন্দার’-এর শ্যুটিং করে এলেন সোহিনী। এ ছাড়া প্রেমিক রণজয়ের সঙ্গে বেড়াতেও গিয়েছিলেন শহরের বাইরে। নির্বাচনের এই ডামাডোলের মধ্যে তাঁকে দেখতে পাওয়া যায় না কোনও দিনই। তাঁর মতে, ‘‘এঁরা প্রত্যেকেই আমার সহকর্মী। তাঁদের মধ্যে এই অদল-বদলের প্রবণতাকে মেনে নিতে পারছি না। কিন্তু এটা তাঁদের ব্যক্তিগত মতামত।’’এরপরেই তিনি ভিডিয়ো বার্তায় স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেন, ‘‘এখনই আমার বিজেপিতে যাওয়ার পরিকল্পনা নেই। রাজনীতির আঙিনায় এখনই নামতে চাই না। আমি অভিনেত্রী, অভিনেত্রী হিসাবেই থাকতে চাই।’’

তবে কিছু দিন আগে গেরুয়া-বাহিনীর তরফে অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত ও সায়নী ঘোষকে যে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছিল, সে বিষয়ে অল্প কথায় তাঁর মনোভাব বুঝিয়ে ছিলেন।

ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় বিজেপিকে ব্যঙ্গ করে তিনি বলেছিলেন, ‘‘এখন যা সময় এসেছে কিছু বলতেই ভয় করে। কিছু একটা বললেই, তাতে মানুষের ভাবাবেগে আঘাত লাগবে। তার পর মামলা রুজু করে দেবে। মানুষের ভাবাবেগটা বড্ড ঠুনকো হয়ে গিয়েছে আজ কাল। কথায় কথায় ভেঙে পড়ে যাচ্ছে।’’

তিনি এ প্রসঙ্গে জানালেন, আকাশ নেই, পাতাল নেই— কোনও ভিত্তি ছাড়া তাঁর নাম জড়ানোয় তিনি অত্যন্ত বিরক্ত হয়েছেন। কোনও দিন দলীয় রাজনীতির দিকে পা বাড়াবেন না তিনি। এ ছাড়া সকলের কাছে তাঁর বিশেষ অনুরোধ, ‘‘আমি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছি কিনা, এটা জানার জন্য দয়া করে আমাকে কেউ ফোন করবেন না।’’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here