স্বাধীনতা দিবসের নিরাপত্তায় ফাঁক না থাকে, মহানগরে অতিরিক্ত ৫০০০ পুলিশ

0
kolkata

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কড়া পুলিশি নিরাপত্তায় মোড়া মহানগর। কাল যে ১৫ আগস্ট। স্বাধীনতা দিবসের নিরাপত্তায় যাতে কোনও ফাঁক না থাকে, তার জন্য শহরে মোতায়েন হচ্ছে অতিরিক্ত ৫০০০ পুলিশ। স্বাধীনতা দিবসকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার যাতে কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, তার জন্য শেষমুহূর্তের সবরকম প্রস্তুতি নিয়েছে কলকাতা পুলিশ। লালবাজার জানিয়েছে, স্বাধীনতা দিবসে সকাল থেকেই সমস্ত রাস্তায় সুষ্ঠু যান চলাচল এবং নিরাপত্তার প্রশ্নে অতিরিক্ত ৫০০০ পুলিশকর্মী নামানো হচ্ছে। একই সঙ্গে পুলিশ এবং মেট্রো কর্তৃপক্ষ বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে।

মঙ্গলবার থেকেই কলকাতা মেট্রোর ২৩টি স্টেশনে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন হয়েছে। বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ১৫ আগস্ট রাত পর্যন্ত থাকবে এই ব্যবস্থা। লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, মোট ২৩টি মেট্রো স্টেশনের মধ্যে ২০ জন মেট্রো রেলের আধিকারিক থাকবেন। স্পর্শকাতর ৫টি স্টেশনে ১৫ জন রিজার্ভ ফোর্সের অফিসার থাকবেন। ৪টি স্টেশনে ১৩ জন ট্রাফিক পুলিশের কর্মী নিযুক্ত থাকবেন। ২টি স্টেশনে সিকিউরিটি কন্ট্রোলের ২ জন অফিসার নিযুক্ত থাকবেন। ১টি স্টেশনে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের একজন অফিসার থাকবেন। এ ছাড়াও প্রত্যেকটি স্টেশনেই কলকাতা পুলিশের ডিভিশনাল অফিসাররাও থাকবেন। তাছাড়া যে স্টেশনগুলি স্পর্শকাতর হিসেবে চিহ্নিত বা যেখানে স্টেশন লাগোয়া ভিভিআইপিদের বাসস্থান রয়েছে, সেখানে সতর্কতা হিসেবে বাড়তি পুলিশি ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির অদূরে যতীন দাস পার্ক মেট্রো স্টেশনে বাড়তি নজরদারি দেওয়া হয়েছে। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে রেড রোডে যে কুচকাওয়াজ আয়োজিত হবে, সেখানেই পুলিশের বেশি অংশকে মোতায়েন রাখা হবে। নজর থাকছে রেড রোড ও তার আশপাশের এলাকা ঘিরেও। প্রতিবছরের মতো এবারও রেড রোডে প্যারেড গ্রাউন্ডে নজরদারির জন্য তৈরি হচ্ছে ৬টি ওয়াচ টাওয়ার। এ ছাড়াও কুইক রেসপন্স টিম (কিউআরটি), হেভিরেডিয়ো ফ্লাইং স্কোয়াড, আরএফএস থাকছে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থার জন্য। এ ছাড়াও আজ রাত দশটা থেকে কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরা রাস্তায় নামবেন। আর লালবাজার কন্ট্রোলরুম থেকে গোটা নিরাপত্তাব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে, স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে লাল সতর্কতাও জারি হয়েছে। ফলে ৬ স্তরীয় নিরাপত্তা বলয়ে ঘেরা থাকছে গোটা বিমানবন্দর। রাজ্যের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জাভেদ শামিম সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, নিরাপত্তার স্বার্থে কুচকাওয়াজ ভেন্যুটি ১৪টি জোনে ভাগ করা হয়েছে। এই চোদ্দোটি জোনকে আবার ৭৪টি সেক্টরে বিভক্ত করা হয়েছে, যেখানে ডিসি পদমর্যাদার আধিকারিকরা উপস্থিত থাকবেন। পাশাপাশি, নিরাপত্তার জন্য অতিরিক্ত পাঁচ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here