শেয়ার বিক্রির সময় টেন্ডারে কারচুপি হয়েছে, মেট্রো ডেয়ারি নিয়ে বিস্ফোরক অভিযোগ অধীরের

0
215
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, বারাসত: ‘মেট্রো ডেয়ারির শেয়ার বিক্রিতে দূর্নীতি হয়েছে। ক্যাবিনেটে সিদ্ধান্ত নিয়ে শেয়ার বিক্রির সময় টেন্ডারে কারচুপি করা হয়েছে। আগামীদিনে আদালতে সেটা আমি প্রমাণ করে দেব।’ বুধবার বারাসাত আদালতে হাজিরা দিতে এসে এই দাবি করেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী। তার দাবি মেট্রো ডেয়ারির শেয়ার বিক্রির পুর বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রী জানতেন। তবুও সেই লাভজনক সংস্থায় থাকা রাজ্যের শেয়ার বিক্রি করা হয়েছে কার্যত জলের দরে। আর তাতেই অধীর চৌধুরী গোটা ঘটনাটির মধ্যে দূর্নীতি দেখতে পেছেন। একই সঙ্গে দেশের অর্থমন্ত্রীকেও এদিন একহাত নেন অধীরবাবু। তার অভিযোগ, ‘দেশের গাড়ি শিল্পের মন্দা নিয়ে নির্মলা সীতারমণের যুক্তি শুনে দেশবাসী তাকে হাসির খোরাক বানিয়েছে। অরুন জেটলির উত্তরসুরী হওয়ার যোগ্য উনি নন। আসলে বিজেপি ভুল লোককে অর্থমন্ত্রকে বসিয়েছে। তিনি অর্থমন্ত্রক সামলাতে পারছেন না।’

জানা গিয়েছে, মেট্রো ডেয়ারিতে রাজ্য সরকারের শেয়ার ছিল ৪৭ শতাংশ। ৪৩ শতাংশ শেয়ার ছিল বেসরকারি একটি সংস্থার। বাকি ১০ শতাংশ শেয়ার ছিল ন্যাশানাল ডেয়ারি ডেভেলাপমেন্ট বোর্ডের হাতে। সম্প্রতী ন্যাশানাল ডেয়ারি ডেভেলাপমেন্ট বোর্ড ও রাজ্য সরকার উভয়েই তাদের হাতে থাকা মেট্রো ডেয়ারির শেয়ার একটি বেসরকারি সংস্থাকে বিক্রি করে দেয়। অধীরবাবুর দাবি, রাজ্য সরকার তার হাতে থাকা শেয়ার কার্যত জলের দরে বিক্রি করে দিয়েছে, তাও মাত্র ৮৫ কোটি টাকায়। অধীরবাবুর এই দাবির কারন হিসাবে যা জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকার তার ভাগের শেয়ার যে বেসরকারি সংস্থাকে বিক্রি করেছে তারাই আবার সিঙ্গাপুরের একটি বেসরকারি সংস্থাকে ১৭০ কোটি টাকায় মেট্রো ডেয়ারির ১৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করেছে। অধীরবাবুর দাবি, এই দরে রাজ্য সরকার যদি বিশ্ব টেন্ডার ডেকে সরাসরি তা বিক্রি করত তাহলে খুব কম করেও রাজ্যের কোষাগারে প্রায় ৬০০ কোটি টাকা আসত। অর্থাৎ রাজ্য সরকার প্রায় ৫০০ কোটি টাকা আয় হারিয়েছে। এর জেরেই অধীরবাবুর দাবি, শেয়ার বিক্রির মূলে দুর্নীতি হয়েছে ও তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গোচরেই হয়েছে।

উল্লেখ্য, মেট্রো ডেয়ারির এই শেয়ার বিক্রির জেরে ইতিমধ্যেই একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে। সেখানে দাবি করা হয়েছে, বিক্রির পদ্ধতি যেমন ভুল তেমনি এই বিক্রির বিষয়টিও বেআইনি। সেই মামকা শুনানির জন্য উঠেছে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন ডিভিশান বেঞ্চে। সেখানে বেঞ্চ নির্দেশ দেয় রাজ্য সরকারকে মেট্রো ডেয়ারির শেয়ার বিক্রি নিয়ে হলফনাম জমা দিতে। সেই হলফনামার বিরুদ্ধে পাল্টা একটি হলফনামা জমা করেছেন অধীরবাবু। এখন দেখার বিষয় এই মামলার জল কতদূর গড়ায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here