kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, মুর্শিদাবাদ: মুখ্যমন্ত্রীকে এবার নজিরবিহীন আক্রমণ করলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। দলীয় কর্মীর ওপর আক্রমণের প্রতিবাদে সোমবার রাত থেকেই বহরমপুর গান্ধী মূর্তির পাদদেশে অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হন অধীরবাবু। ঘটনায় জড়িত দুই ব্যক্তি গ্রেফতারের পর প্রায় বারো ঘন্টা পর অবস্থান বিক্ষোভ থেকে সরে আসেন অধীরবাবু। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেলা কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ করেন তিনি।

সোমবার বেলডাঙায় নির্বাচনী জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী যেভাবে অধীর রঞ্জন চৌধুরী আক্রমণ করেন, আরএসএস-এর সঙ্গে কংগ্রেসের আঁতাত প্রসঙ্গ টেনে এনে তোপ দাগেন বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের এই কংগ্রেস প্রার্থীকে, এদিন তার তীব্র প্রতিবাদ করেন তিনি। ব্যক্তিগত জীবন রাজনীতির সঙ্গে এক করা ঠিক নয় বলে দাবি করেন অধীরবাবু। প্রসঙ্গত, সোমবারই বেলডাভায় অধীর চৌধুরীর ব্যক্তিগত জীবনকে খোঁচা দিযে দিদি বলেছিলেন, নিজের মৃত স্ত্রীর নাম হলফনামায উল্লেখ করেননি অধীর চৌধুরী৷ সেই প্রসঙ্গেই এদিন মুখ্যমন্ত্রীকে জবাব দেন অধীর চৌধুরী৷ তিনি বলেন, আমার ব্যক্তি জীবন মুর্শিদাবাদবাসীর কাছে খোলা খাতার মত। এতে প্যান্ডোরার বাক্স খোলার কিছু নেই। আর নির্বাচনের পরে কেন, আমার বিরুদ্ধে যা অভিযোগ আছে তা নির্বাচনের আগেই বলুন, সাফ জানান অধীর। আর না বললে আপনি রাজনীতির ঠগবাজ। বেলডাঙা ও ভগবানগোলার সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়েছেন। তাকে মুখ্যমন্ত্রী জায়গায় দেখাটা দুর্ভাগ্যজনক, মুর্খমন্ত্রী বলাটাই শ্রেয় বলে দাবি অধীর চৌধুরীর।

তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ শানিয়ে আরও বলেন, বাংলায় দ্বিতীয় পঞ্চায়েত ভোটের মত হতে দেব না। এদিন ফের একবার তৃণমূল সুপ্রিমোকে বহরমপুর থেকে ভোটে লড়ার চ্যালেঞ্জ জানান কংগ্রেস প্রার্থী৷ বলেন, আপনি তো প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন, আর তা হতে গেলে একজন সাংসদ হতে হয় তা কি জানেন। হিম্মত থাকলে বহরমপুর কেন্দ্র থেকে জিতে দেখান৷ আর তা না করে কংগ্রেসের উচ্ছিষ্ট খাবার নিয়ে পোলাও বিরিয়ানি বানানোর চেষ্টা করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here