প্রধানমন্ত্রী না খেলেও পেঁয়াজের ‘মধু’ ফড়েরা খেয়ে নিচ্ছে, সংসদে অধীরের ক্ষোভ

0
bengali news adhir onion

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গতকাল হায়দারাবাদের গণধর্ষণ কাণ্ড নিতে সরগরম ছিল সংসদ। এদিন শেয়ার বাজারের কায়দায় উঠতে থাকা পেঁয়াজের দাম নিয়ে সরকারকে ঝাঁজ দেখালেন লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। মধ্য থেকে নিম্নবিত্তদের কপালে ভাঁজ ফেলে পেঁয়াজের দাম যেভাবে বাড়তে শুরু করেছে, তা রেডিমেড ইস্যু তুলে দিয়েছে বিরোধীদের হাতে। এদিন সংসদ চত্বরে পেঁয়াজের মালা গলায় পরে মূল্যবৃদ্ধি ইস্যুতে সুর চড়ান সাংসদরা।

সংসদে বক্তব্য রাখতে উঠে বহরমপুরের সাংসদ বলেন, ‘বাজারে আগুন লেগে গিয়েছে, নিত্য প্রয়োজনীয় প্রত্যেকটি জিনিসের দাম আকাশ ছুঁয়েছে। অথচ কেন্দ্রীয় সরকার বিষয়টিকে কিছুতেই গুরুত্ব দিচ্ছে না। দেশের বেশিরভাগ বাজারে ১৪০-১৫০ টাকা প্রতি কেজির দামে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। আম আদমি এত টাকা দিয়ে পেঁয়াজ কিনলেও পেঁয়াজ চাষিদের হাত খালি। উল্টে বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করতে হচ্ছে। তাহলে এত টাকা ও এত পেঁয়াজ যাচ্ছে কোথায়,’ প্রশ্ন করেন অধীর।

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর একটি কথা খুব জনপ্রিয়তা লাভ করে। তা হল- ‘না খাউঙ্গা, না খানে দুঙ্গা।’ অর্থাৎ, আমি নিজেও খাবো না, কাউকে খেতেও দেব না (ঘুষ)। মোদীর এই কথা টেনেই অধীর পাল্টা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীই তো বলেন কিছু নিজেও খাবেন না কাউকে খেতেও দেবেন না। আমি একবারও বলছি না যে প্রধানমন্ত্রী কিছু খান (ঘুষ), কিন্তু আমাদের দেশে ফড়েরা সব খেয়ে চলে যাচ্ছে।’

অন্যদিকে দিল্লি ও সংলগ্ন এনসিআর এলাকায় পেঁয়াজের দাম বাড়া নিয়ে এদিন সংসদে পেঁয়াজের মালা গলায় ঝুলিয়ে বিক্ষোভ দেখান আম আদমি পার্টির সাংসদরা। গান্ধী মূর্তির পাদদেশে দাঁড়িয়ে তাদের প্রশ্ন, কেন ক্রমশ ভয়াবহ আকার ধারণ করছে পেঁয়াজের দাম?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here