বাংলাকে ভিখারির রাজ্য বানিয়েছেন মমতা! বেতন চাইলেই মার খেতে হয়, তোপ দাগলেন অধীর

0
1505
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বেতন কমিশনের সুপারিশ মেনে বেতন ও ভাতা দেওয়া হবে কর্মীদের। আগামী জানুয়ারি থেকেই বর্ধিত হারে বেতনের আশ্বাস। বেতন বাড়তে পারে আড়াই গুণের বেশি। গতকাল এমনটাই ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর এই ঘোষণার পর থেকেই একে একে কটাক্ষ করতে শুরু করেছে বিরোধীরা। গতকালই মমতাকে তোপ দেগে মন্তব্য করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন মাঠে নামলেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী। বললেন, যে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী শিল্প না এনে শুধু শিল্প আনার উৎসবে কোটি কোটি ব্যয় করেন, সেই মুখ্যমন্ত্রীর আমলে বাংলার বর্তমান বাংলার ভবিষ্যৎ একটা বিরাট বড় প্রশ্নচিহ্নের মুখে।

বেতন বাড়ানোর প্রসঙ্গে অধীরের বক্তব্য,

‘২০২০ আসতে আসতে কোথায় কী যাবে তার ঠিক আছে? যে ডিএ বাড়াচ্ছে সে কোথায় যাবে ঠিক নেই, ২০২০ এখন অনেক দেরি। গাছে কাঁঠাল, গোঁফে তেল দিয়ে কোনও লাভ নেই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই বাংলাকে ভিখারির রাজ্যে রূপান্তরিত করেছেন। রাজ্যে শিক্ষকরা মার খাচ্ছেন, ছাত্ররা মার খাচ্ছেন। যারা বেতন চাইছেন তারাই মার খাচ্ছেন। যে রাজ্যে বেতন চাইলেই মার খেতে হয়, সেই রাজ্যে ডিএ বাড়ল কী বাড়ল না তাতে কিছু এসে যায় না।’

অধীর আরও বলেন, ‘বাংলার মানুষের প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কতটা দরদ রয়েছে তা মানুষ জানেন। বাজার পড়ে গিয়েছে, তাই বাজার ধরে রাখার জন্য একটা কিছু বলছেন। সামনে আবার পুজো আসছে, তার আগেই মানুষকে কিছু একটা বলে রাখা। রাজ্যের শিল্পের অবস্থাও খারাপ। গত ৪ বছর শিল্প সম্মেলন হল, এবছর তা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। কত টাকার খালি গল্পই বলা হল, বিনিয়োগ কই।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here