FotoJet-105

নিজস্ব প্রতিবেদক, কান্দি: কংগ্রেস নেতা আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় রাতভর ধর্নায় বসলেন অধীর চৌধুরী। সোমবার রাতে কান্দির বড়ঞা থানার পাচথুপি এলাকায় দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হন কংগ্রেস নেতা তাপস দাসগুপ্ত। তিনি বড়ঞা এলাকার বিধানসভার দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত পর্যবেক্ষক তথা প্রদেশ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক। সোমবার রাতে নির্বাচনী প্রচার সংক্রান্ত কাজ সেরে ফেরার পথে দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হন তিনি। কংগ্রেসের দাবি, তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই তাপস দাসগুপ্তর ওপর হামলা চালিয়েছে। বর্তমানে কান্দি মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন তাপসবাবু।

দলীয় নেতার ওপর হামলার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মধ্যরাত থেকেই বহরমপুর প্রশাসনিক ভবন সংলগ্ন গান্ধী মূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ অবস্থানে সামিল হল বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী অধীর রঞ্জন চৌধুরী। এরপর একে একে এই ধর্নায় যোগ দেন কংগ্রেস নেতা কর্মীরা।বিক্ষোভ অবস্থানে সামিল হন বিধায়ক মনোজ চক্রবর্তী, প্রাক্তন সভাধিপতি শিলাদিত্য হালদার সহ অন্যান্য দলীয় নেতা কর্মীরা। মঙ্গলবার সকাল হলেও অবস্থান বিক্ষোভ থেকে অনড় অধীর বাবু।

এদিন রাতেই পুলিশ ও প্রশাসনের উপর ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। বলেন জেলার এসপি, ডিএম শাসকদলের ‘পা-চাটা সারমেয়’। এমনকি জেলাশাসককে ‘শুয়োর’ বলেও সম্মোধন করেন তিনি। জেলাশাসককে দেখে নেওয়ার ও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। জেলায় মুখ্যমন্ত্রী আসায় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা বাড়তি অক্সিজেন পেয়ে গিয়েছে। কংগ্রেস কর্মীদের মনোবল ক্ষুণ্ণ করতেই নেতাদের ওপর আক্রমণ করছে বলে দাবি করেন তিনি। আক্রমণকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ না করা পর্যন্ত এই অবস্থান বিক্ষোভ চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন অধীরবাবু।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here