kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে না পাওয়ায় সময়মতো হাসপাতালে ভর্তি হতে না পেরে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ায়। এই ঘটনায় মৃতের পরিবার গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে।

জানা গিয়েছে, হাওড়ার চ্যাটার্জিহাট থানা এলাকার বাসিন্দা মধ্যবয়স্ক ওই ব্যক্তির কয়েকদিন আগে জ্বর, সর্দি এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। গত বৃহস্পতিবার একটি  নার্সিংহোমে চিকিৎসা করালে চিকিৎসক কোভিড পরীক্ষার পরামর্শ দেন। মৃতের ভাই জানান, দাদার বুকে সর্দি বসে গিয়ে শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। গত ১০ জুলাই তাঁকে নিয়ে ডুমুরজলা ইন্ডোর স্টেডিয়ামের কাছে একটি নার্সিংহোমে নিয়ে গেলে করোনা সন্দেহে সঙ্গে সঙ্গেই চলে যেতে বলা হয়। এরপরে আশপাশে আরও দুটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও করোনা রিপোর্ট না দেখে ভর্তি করা যাবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়।

এরপর আমরা হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। জানানো হয়, রিপোর্ট পজিটিভ হলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই জানা যাবে। কিন্তু দু’দিন পরেও সেই রিপোর্ট এসে পৌঁছয়নি। শনিবার আবার গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন দাদা। প্রথমে ডুমুরজলা স্টেডিয়ামের কাছে ওই বেসরকারি নার্সিংহোম নিয়ে গেলে ফিরিয়ে দেওয়া হয় তাঁদের। এরপরে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসকরা জানান, পথেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। দাদা করোনায় মারা গিয়েছেন কিনা সেই রিপোর্ট না পাওয়া গেলেও পাড়াতেও সমস্যা হচ্ছে। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, কোভিড রিপোর্ট হাতে পেলে অন্য জায়গাতেও হাসপাতালে ভর্তির সুযোগ পেতেন। কিন্তু হাতে রিপোর্ট না থাকায় কার্যত বিনা চিকিৎসায় তিনি মারা গেলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here