৩ দিনেও কোনও পদক্ষেপ নয়, তবে কি শোভন ফিরবে এই আশায় দিন গুনছে তৃণমূল!

0

মহানগর ওয়েবডেস্ক: শেষ লগ্নে তৃণমূলকে যে ঝটকাটা কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় দিয়েছেন তাতে তৃণমূল যে গুরুতর আহত তা আলাদা করে বয়লার দরকার পড়ে না। গত ১৪ আগস্ট শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিজেপি যোগের পর পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন দলীয় নিয়ম মেনে শোভনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে তৃণমূল। দলত্যাগ বিরোধী আইনে নেওয়া হবে কড়া পদক্ষেপ। তবে ৩ দিন কেটে গেলেও তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিল না তৃণমূল। সাধারণ কোনও নেতা দলত্যাগ করলে নিদেনপক্ষে শোকজ নোটিশটা ধরায় দল। কিন্তু এতদিন কাটলেও ছোট হোক বা বড় কোনও পদক্ষেপই করা হল না শোভনের বিরুদ্ধে। আর এর জেরেই নতুন করে একাধিক প্রশ্ন উঁকি মারতে শুরু করল রাজনৈতিক মহলে।

তৃণমূলের ওজনদার নেতা বিজেপিতে ঢোকার ঘটনা অবশ্য রাজ্যে নতুন নয়, মুকুল রায় থেকে শুরু করে সৌমিত্র খা, অনুপম হাজরা, শুভ্রাংশু রায়, অর্জুন সিংয়ের মতো একাধিক নেতা যোগ দিয়েছে গেরুয়া শিবিরে। তবে তাঁদের যোগদানের পরই কড়া পদক্ষেপ নিতে দেরি করেনি দল। কখনও বা পুরানো মামলায় তাঁদের পিছনে হাত ঢুয়ে লেগেছে পুলিশ। তবে দলত্যাগী শোভনের ক্ষেত্রে হঠাৎ ব্যাতিক্রমী ঘাসফুল। আর এখান থেকেই রাজনৈতিক মহলের অনুমান তবে কি শোভন ফিরবে এই আশায় দিন গুনছে তৃণমূল। নাকি তাঁকে সম্পূর্ণ উপেক্ষা করতে চায় দল? প্রসঙ্গত, মুকুল রায় দল ত্যাগের পর ৬ বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয় তাঁকে। সৌমিত্র খাঁ ও অনুপম হাজরার ক্ষেত্রেও নেওয়া হয় একই ব্যবস্থা তবে শোভনের ক্ষেত্রে নয় কেন। এই প্রশ্নই এখন ভাবাতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহলকে।

এদিকে, শোভনের দল ছাড়ার পর তাঁর বিরুদ্ধে সেভাবে সরব হতেও দেখা যায়নি ঘাসফুলের শীর্ষ নেতাদের। যা থেকেই রাজনৈতিক মহলের অনুমান, হয়ত শোভন চট্টোপাধ্যায় ফের তৃণমূলে ফিরে আসতে পারেন এমনটাই আশা করছেন তৃণমূল নেতারা। অথবা, কোনও বড়সড় রাজনৈতিক পরিকল্পনা করছে তৃণমূল। শোভনের দল ত্যাগ থেকে শুরু করে বিজেপি যোগ গোটাটাই পূর্বপরিকল্পিত। তবে তৃণমূলের সূত্রে জানা যাছে, শোভনকে কোনও গুরুত্ব দিতে নারাজ তাঁরা। পুরোপুরি উপেক্ষা করা হচ্ছে তাঁকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here