ডেস্ক: শুক্রবারই দেখা মিলতে চলেছে ১০০ বছরের দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ। শেষ কয়েকবছর আগে বেশ অন্যরকম ভাবে দেখা গিয়েছে চাঁদকে। নজিরবিহীনভাবে এক সারিত বসবে পৃথিবী, সূর্য এবং চাঁদ। এমন ঘটনা শতাব্দীতে একবারই দেখা যায়। যারফলে এই চন্দ্রগ্রহণ দীর্ঘতম হতে চলেছে। গ্রহণের সময় চাঁদের রং টুকটুকে লাল হয়ে যাবে। বিজ্ঞানীরা যাকে বলে থাকেন, ব্লাড মুন।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের এটি হচ্ছে দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ। বৈজ্ঞানিকরা বলে থাকেন, চাঁদের কোনও নিজস্ব আলো নেই, আর গ্রহণের সময় সূর্যের আলো ঠিক মতো চাঁদের কাছে এসে পৌঁছাতে পারে না। তার ফলেই পৃথিবীর কিছু আলো চাঁদের ওপরে গিয়ে পড়ে। আর তখনই চাঁদের রং লাল হয়ে যায়। তাই এই কারণেই বৈজ্ঞানিকরা একে ব্লাড মুন বলে থাকেন।

এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ দেখা যাবে মধ্যপ্রাচ্য, দক্ষিণ চিন এবং আফ্রিকায়। তাছাড়া এর নিদর্শন দেখা যাবে ভারতেও। ভারতীয় সময় অনুযায়ী এই চন্দ্রগ্রহণকে দেখা যাবে রাত ১১টা ৪৪ মিনিট থেকে। এই সময় পৃথিবী এবং চাঁদ একই জায়গায় থাকবে, যার কারণেই চাঁদের রং টুকটুকে লাল দেখাবে। এই গ্রহণ চলবে ভোর ৪টা ৫৮ মিনিট পর্যন্ত। খুশির খবর, এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণকে খোলা আকাশের নীচে খালি চোখে দেখা যেতে পারে। তবে বিশেষত গ্রামগঞ্জের দিকে আরও পরিস্কারভাবে দেখা যাবে এই চন্দ্রগ্রহণ। এবারের চন্দ্রগ্রহণ হতে চলেছে প্রায় ১০৫ মিনিট ধরে। এর আগে ২০১১ সালের ১৫ জুন ১০০ মিনিট ধরে চলেছিল। দীর্ঘতম এমন চন্দ্রগ্রহণ আমাদের প্রজন্ম আর দেখতে পারবে না। কারণ এরপর দীর্ঘতম চন্দ্রগ্রহণ দেখা যেতে পারে ২১২৩ সালের ৯ জুন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here