ট্যাংরায় জোড়া খুনের কিনারা মাত্র ২৪ ঘন্টায়, খুনি মৃত মহিলার স্বামী

0
74
kolkata

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কলকাতা পুলিশের বড় সাফল্য৷ ২৪ ঘন্টার আগে ট্যাংরায় জোড়া খুনের কিনারা করল। পুলিশি জেরার মুখে স্ত্রী-বাবাকে খুনের কথা স্বীকার করে নেয় ছেলে। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তি, স্ত্রীর সঙ্গে অশান্তি চলছিল । অশান্তির জেরেই অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে স্ত্রীকে বেধড়ক মারে। ঘটনাটি দেখে ফেলে বাবা। তখন বাবাকেও আঘাত করে অ্যালুমিনিয়ামের বালতি দিয়ে। নির্মম মারধরেই ছেলের হাতে মৃত্যু হয় বাবা ও স্ত্রীর। হতরা সবাই চিনা৷অবৈধ সম্পর্কের জেরে স্ত্রীকে হত্যী করেছে বলে জানিয়েছে স্বামী লি সাঙ৷

শুক্রবার রাতে ট্যাংরায় উদ্ধার হয় এক মহিলার রক্তাক্ত দেহ । বাড়িতে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার শ্বশুরও। একই ঘরে ছিলেন শ্বশুর-বউমা। ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ ছিল। ঘটনার সময় ওই মহিলার স্বামী বাইরে ছিলেন। দরজা খুলতে না পেরে ক্লাবের ছেলেদের খবর দেন। মই নিয়ে এসে বাড়ির পিছন দিক থেকে উপরে ওঠেন পাড়ার ছেলেরা।
বন্ধ ঘর থেকে লি হাও মিয়া এবং লিকা সোকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের কিছুক্ষণ পরেই মহিলার মৃত্যু হয়। শ্বশুর লিকাকে এনআরএসে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। মহিলার মুখে ছিল আঘাতের চিহ্ন।

তবে হত্যাকাণ্ড একেবারে নিপুণভাবে সাজানোর চেষ্টা করেছিল খুনি৷ তবে শেষ রক্ষা করতে পারেনি৷ ঘরের অবস্থা দেখে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, লুঠের উদ্দেশে খুন হয়নি। ঘরে রাখা টাকা বা অন্য দামি জিনিস খোয়া যায়নি। লিও-র স্বামী ও শ্বশুর জ্যোতিষি বলে জানা যায়। রাতে ঘটনাস্থলে আসে ফরেনসিক টিম।৭-৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ, খতিয়ে দেখা হয় সিসিটিভি ফুটেজ। দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় মৃতা মহিলার স্বামীকে। পুলিশি জেরার মুখে নিজের দোষ কবুল করেছে অভিযুক্ত ছেলে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here