ডেস্ক: প্রথমে ইন্দোনেশিয়া, তারপর ইথিয়োপিয়া। মাত্র কয়েক মাসের ব্যবধানেই দুটি বিমান ভেঙে পড়ল। কাকতলিয়ভাবে এই দুই বিমানের প্রস্তুতকারক সংস্থা হল ‘বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স’ মডেল। রবিবার ইথিয়োপিয়ার আদ্দিস আবাবা বিমানবন্দর থেকে নাইরোবির উদ্দেশ্যে বোয়িং ৩৭৩ নামের বিমানটি উড়ান ভরে। তবে মাঝপথেই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বিমানটি। এই দুর্ঘটনায় প্রায় ১৫৭ জন যাত্রীর মৃত্যু হয়। মৃতদের মধ্যে ৪ জন ভারতীয় ছিল বলেও জানা যায়। এবার এই ঘটনার ফলে একেবারে নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্রীয় অসমারিক বিমান পরিবহন মন্ত্রক।

সূত্রের খবর, মার্কিন বিমান প্রস্তুতকারক সংস্থা বোয়িং-এর কাছে ‘৭৩৭ ম্যাক্স’ মডেল নিয়ে খুঁটিনাটি জানতে চাওয়া হয়েছে। এই মডেলের বিমানটি কেন বারবার দুর্ঘটনার কবলে পরছে সে বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে কোম্পানির কাছে। তবে শুধু বোয়িং নয়, জেট এয়ারওয়েজ এবং স্পাইস জেটের কাছেও একই তথ্য চেয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। কারণ এই দুই সংস্থাও ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলের কয়েকটি বিমান চালায়। বিভিন্ন মহল থেকে এখন একটা প্রশ্ন উঠে আসছে যে এবার কি চিনের পর ভারতেও ‘বোয়িং ৭৩৭’ বিমানের উড়ান বন্ধ হতে চলেছে?

উল্লেখ্য, গতবছর ৩০ অক্টোবর ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ার-এর একটি বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ মডেলের বিমান সমুদ্রে ভেঙে পড়ে। এই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে মৃত্যু হয় প্রায় ১৮৯ যাত্রীর। এরপরেই ইথিয়োপিয়াতেও একই ঘটনা ঘটল। এই ঘটনার ফলে যথেষ্ট শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here