kolkata bengali news

ডেস্ক: বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের তিব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও তিন তালাক ইস্যুতে সংবিধানের পরিবর্তন এনেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এবার সেই পথেই আরও একধাপ এগোনোর সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। মুসলিম সমাজের নিকাহ হালালা প্রথার বিরুদ্ধে সুপ্রিম দ্বারস্থ হবে সরকার এমনটাই জানা গেল কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রকের এক উচ্চ আধিকারিকের কথায়।

ওই আধিকারিকের কথায়, কেন্দ্রীয় সরকারের মতে এই নিকাহ হালালা প্রথা সংবিধানের পরিপন্থী। এই প্রথার ফলে ওই মুসলিম মহিলারা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। এই প্রথার যে সংবিধান বিরোধী তা আদালতের তরফে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। যখন তিন তালাকের পিটিশন জমা দেওয়া হয় সেই সময়েই মুসলিম সমাজে বহুবিবাহ ও নিকাহ হালালার বিরুদ্ধে আদালতে সরব হন আইনজীবীরা। এই প্রথাকে আদালত সংবিধান বিরোধী মন্তব্য করলেও বলা হয়েছিল তিন তালাক এবং নিকাহ হালালা সম্পুর্ণ আলাদা ক্ষেত্র তিন তালাক মামলার সঙ্গে এর কোনও যোগ নেই। যার ফলেই নতুন করে এই প্রথার বিরুদ্ধে সুপ্রিম দ্বারস্থ হবে কেন্দ্র। কেন্দ্রের আশা মুসলিম সমাজ থেকে সম্পূর্ণরুপে দূর হবে নিকাহ হালালার মতো এই প্রাচীন প্রথা।

উল্লেখ্য, নিকাহ হালালা অনুযায়ী, কোনও মুসলিম মহিলাকে তাঁর স্বামী যদি তালাক দেয় এবং পরে আবার তাঁকে ফেরৎ পেতে চায়, সেক্ষেত্রে তালাক পাওয়া স্ত্রীকে দ্বিতীয় বিয়ে করতে হয় অন্য ব্যক্তির সঙ্গে। টানা ৩ মাস ধরে তালাক প্রাপ্ত সেই মহিলার সঙ্গে সহবাস করে তাঁর দ্বিতীয় স্বামী। তিনমাস পরে ফের তাঁকে ঘরে নিতে সক্ষম হয় তাঁর প্রথম স্বামী। মুসলিম সমাজে ভুল প্রচলিত এই প্রথা নিয়ে বহুকাল ধরেই সরব ছিল বিভিন্ন মহল। এবার আইন করে তার বিরুদ্ধে রোখ আনতে চাইছে সরকার।