ডেস্ক: বিতর্ক কাটছে না স্কুল সার্ভিস কমিশনের। কোর্টের নির্দেশ মেনে সম্প্রতি মেধা তালিকা প্রকাশ করেছে এসএসসি। ঠিক তারপরেই নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ হলেন চাকরিপ্রার্থীরা। একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের প্যানেল অবিলম্বে বাতিল করার দাবি জানিয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা।

আদালতের নির্দেশ মেনে সোমবারই মেধা তালিকা প্রকাশ করেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন। কিন্তু চাকরিপ্রার্থীদের অভিযোগ, এই তালিকা প্রকাশের ক্ষেত্রে কোনও নিয়ম মানেনি এসএসসি। এই মেধা তালিকায় নেই কোনও স্কোর কার্ড ও র‍্যাঙ্ক। যার ফলে তৈরি হয়েছে বিভ্রান্তি। ২০১৬ এসএসসি-এর নিয়মের ১২ নং ক্লজ ভঙ্গ করার অভিযোগ তুলে আদাতলের দ্বারস্থ হয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। এর আগে উচ্চমাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগের জন্য নিয়ম না মেনে মেধা তালিকা প্রকাশের আগেই কাউন্সেলিংয়ের ডাক দেয় এসএসসি। যা নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। সেই মামলায় আদালত প্রশ্ন তোলে কিভাবে মেধা তালিকা প্রকাশের আগে কাউন্সেলিংয়ের ডাক দিল কর্তৃপক্ষ? কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, এসএসসি-র ১২ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, আগে চূড়ান্ত মেধাতালিকা পিডিএফ ফর্ম্যাটে প্রকাশ করতে হবে। তারপরই, কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া শুরু করা যাবে।’

এরপর আদালতের নির্দেশ মেনে চূড়ান্ত মেধা তালিকা প্রকাশ করে স্কুল সার্ভিস কমিশন। কিন্তু সেই মেধা তালিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলে চাকরিপ্রার্থীরা। তাঁদের দাবি, মেধা তালিকাতেই বেনিয়ম করেছে কর্তৃপক্ষ। যোগ্য প্রার্থীরা চাকরি পাচ্ছে না অথচ পিছন থেকে নাম উঠে আসছে আগে। কারণ নামের পাশে কোনও স্কোর কার্ড ও র‍্যাঙ্ক। যার জেরেই আদালতের দ্বারস্ত হল স্কুল সার্ভিস কমিশনের চাকরিপ্রার্থীরা। বলা বাহুল্য, এই মামলার জেরে ফের আইনি ফাঁসে পড়ল শিক্ষক নিয়োগ ও হাজার হাজার চাকরিপ্রার্থীর ভবিষ্যৎ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here