ডেস্ক: বাংলার পর এবার ইংরাজি। উচ্চমাধ্যমিকের প্রথম দিনই হোয়াটসঅ্যাপে প্রশ্ন ফাঁস হয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। এবার ইংরাজি পরীক্ষার দিনও প্রায় একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। উচ্চ মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র নিয়ে ছড়িয়ে পড়ল বিভ্রান্তি। অভিযোগ, পরীক্ষা শুরুর আগেই মালদহের সুজাপুর থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ও সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ছড়িয়ে পড়ে ইংরাজি প্রশ্নপত্র।

উচ্চমাধ্যমিক শুরুর দিনও একই ধরণের ঘটনা দেখতে পাওয়া গিয়েছিল। বাংলা মাধ্যমে ছিল বাংলা পরীক্ষার প্রথম পর্ব৷ সেই প্রশ্নপত্রের MCQ-এর প্রায় সবকটি প্রশ্ন পরীক্ষা শুরুর পরেই বাইরে চলে আসে বলে অভিযোগ৷ হোয়াটস অ্যাপে এই প্রশ্ন বাইরে ছিড়িয়ে পড়ে৷ অথচ, পরীক্ষা কেন্দ্রের মধ্যে মোবাইল ফোন কঠোরভাবে নিষিদ্ধ ছিল৷ তা সত্ত্বেও কীভাবে মোবাইল ভিতরে গেল এবং প্রশ্নপত্র বাইরে এল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। প্রশ্ন ফাঁসের কথা কার্যত স্বীকার করে নিয়ে সংসদ সভাপতি মহুয়া দাস বলেন, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখেছি৷ অভিযোগ প্রমাণ হলে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷ যদি প্রশ্নপত্র সত্যিই ফাঁস হয়ে থাকে, তাহলে কোথা থেকে সেটা হল তা তদন্ত করে দেখতে হবে৷

কিন্তু প্রথম দিনের পর দ্বিতীয় দিনও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হওয়ার ফলে সংসদের গাফিলতির কথা বারবার উঠে আসছে। একই ভুল বারবার কীভাবে হতে পারে এই নিয়ে চিন্তিত সকলেই। আজকের দিনের ঘটনায় অবশ্য এখনও কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি সংসদ তরফে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here