ডেস্ক: ফের জঙ্গি হামলার ভয়াবহতা ফিরে এল ফ্রান্সে। শুক্রবার দক্ষিণ ফ্রান্সের কারক্যাসন শহরে এক পুলিশকর্মীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় এক বন্দুকবাজ ঘটনার জেরে মৃত্যু হয় ২ পুলিশ কর্মী একই সঙ্গে সেখানে বেশ কয়েকজন মানুষকে পণবন্দী করে রেখেছে জঙ্গিরা। অন্যদিকে, দক্ষিণ পশ্চিম ফ্রান্সের ত্রেবেস এলাকার সুপারমার্কেট সুপার ইউ স্টোরে গুলিচালনার পাশাপাশি সেখান থেকে গাড়িতে ১৫ মিনিট দূরে আরও একটি গুলি চালনার ঘটনা ঘটে যেখানেও মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। এই ঘটনার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট জঙ্গি সংগঠন।

সূত্রের খবর, স্থানীয় সময় সকাল ১১ টা ১৫ নাগাদ আল্লাহ আকবর ধ্বনি দিতে দিতে এলাকায় ঢোকে এক জঙ্গি। নিজেকে ইসলামিক স্টেটের সদস্য বলে দাবি করে সে। ওই এলাকার সুপার মার্কেটে ঢুকে বেশ কয়েকজন মানুষকে পণ বন্দী করে নেয় সে। তার গুলিতে মৃত্যু হয় এক পুলিশকর্মীরও। হামলার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন নিরাপত্তারক্ষীরা। ঘিরে ফেলা হয় গোটা এলাকা। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এডুয়ার্ডো ফিলিপ।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সাল থেকে একের পর এক জঙ্গি হানায় হাই এলার্ট জারি রয়েছে ফ্রান্সে। ২০১৫ সালে স্থানীয় ম্যাগাজিন শার্লি এবদোর দপ্তরে হামলায় নিহত হয়েছিলেন ১২ জন। এছাড়া সেখানে বার, রেস্তোরাঁ, বাটাক্লান কনসার্ট হল, ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে নিহত হন ১৩০ জন। ২০১৬ সালে বাস্তিল ডে উৎযাপনের সময় এক জমায়েতে বহু মানুষকে পিষে দেয় একটি ট্রাক সেই ঘটনায় মৃত্যু হয় ৮৪ জনের। এরপর ফের জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটল ফ্রান্সে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here