kolkata news

Highlights

  • নাগরিকত্ব আইন সিএএ-র প্রতিবাদে সরব গোটা দেশ
  • আমাদের দেশে বহু ভাষা, বহু সংস্কৃতি, বহু জাতির মানুষ একত্রে মিলেমিশে বসবাস করেন
  • ধর্ম নিরপেক্ষ সংস্কৃতি ভেঙে গেলে দেশটাও ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নাগরিকত্ব আইন সিএএ-র প্রতিবাদে সরব গোটা দেশ। মোদী সরকারের আনা এই আইনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই পথে নেমেছে দিল্লি, বেঙ্গালুরু। পিছিয়ে নেই শহর কলকাতাও। গত দু’দিন ধরে এই আইনের প্রতিবাদে রাজপথে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মহামিছিলের পর এবার পথে নামলেন বুদ্ধিজীবীরাও। তাঁদের সঙ্গ দিলেন ছাত্রছাত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষও।

বৃহস্পতিবার সকালে মৌলালি থেকে শুরু হয় নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে বুদ্ধিজীবীদের এই মিছিল। যেখানে এই আইনের বিরুদ্ধে পা মিলিয়েছেন অপর্ণা সেন, কৌশিক সেনের মতো নাট্যব্যক্তিত্বরা। বুদ্ধিজীবীদের এই মিছিলের পায়ে পা মিলিয়েছেন হাজারেরও বেশি ছাত্রছাত্রী ও সাধারণ মানুষ। মিছিল শেষ হওয়ার কথা রয়েছে ডোরিনা ক্রসিং-এ। এই মিছিলে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে অপর্ণা সেন বলেন, ‘আমাদের এই উপমহাদেশ ভারতে বহু ভাষা, বহু সংস্কৃতি, বহু জাতির মানুষ একত্রে মিলেমিশে বসবাস করেন। সেখানে এই আইন ধর্ম নিরপেক্ষতার জন্য একটি বড়সড় অশনি সংকেত। যদি ভারতের এই ধর্ম নিরপেক্ষ সংস্কৃতি ভেঙে যায় তাহলে দেশটাও ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে।’

উল্লেখ্য, গত ১২ ডিসেম্বর দেশের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সাক্ষরের সঙ্গে সঙ্গে আইনের মর্যাদা পেয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। সংসদে নাগরিকত্ব আইন পাশ হওয়ার পর থেকে গোটা দেশ উত্তাল হয়ে উঠেছে এই ‘একুশে আইন’-এর বিরুদ্ধে। ধর্মের ভিত্তিতে এই নাগরিকত্ব সংবিধান বিরোধী বলে সরব হয়েছে দেশের বেশীরভাগ বিরোধী রাজনৈতিক দল। নয়া এই আইন অনুযায়ী পাকিস্তান, আফগানিস্থান ও বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি ও খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেবে মোদী সরকার। তবে ধর্মের ভিত্তিতে আনা এই নাগরিকত্ব আইন চাই না বলে ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিল পাকিস্তানী হিন্দুরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here