ডেস্ক: দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে অগাস্টা ওয়েস্টল্যান্ড চপার কেলেঙ্কারির মূল অভিযুক্তকে ভারতের মাটিতে আনা হয়েছে। দুবাই কোর্টের তরফ থেকে দু’সপ্তাহ আগেই ক্রিশ্চিয়ান মাইকেলকে দিল্লিতে প্রত্যার্পণের নির্দেশ জারি করেছিল। ইতিমধ্যেই দুবাই প্রশাসনের তরফ থেকে একটি বিশেষ বিমানে গতকাল রাতে তাকে দিল্লিতে ফিরিয়ে আনা হয়। বিমানবন্দর থেকে তাকে সরাসরি সিবিআই দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। সারারাত ধরে সিবিআই জেরা চালায়। ক্রিশ্চিয়ান মাইকেলকে আজকে কোর্টে তোলা হবে। মাইকেল ক্রিশ্চিয়ানের আইনজীবী রোজমেরি প্যাট্রিজি সংবাদমাধ্যমকে জানান, মাইকেলকে ২০১৭ সালেই দুবাই শীর্ষ আদালতের নির্দেশে গ্রেফতার করা হয়েছিল। পরে জামিনে তাকে ছাড়া হয়।

ক্রিশ্চিয়ান মাইকেল অগাস্টা ওয়েস্টল্যান্ড চপার দুর্নীতির তিন অভিযুক্তদের মধ্যে অন্যতম। প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালে তৎকালীন কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে ভিভিআইপি-দের জন্য ১২ টি বিলাসবহুল হেলিকপ্টার কেনার চুক্তি হয়েছিল। সেই চুক্তিতেই ২২৫ কোটি টাকা ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ উঠেছিল এবং যার মূলচক্রী হিসাবে নাম উঠেছিল এই ক্রিশ্চিয়ান মাইকেলের। শুধু তাই নয় এই অর্থ ভারতের বিভিন্ন প্রভাবশালীদের পকেটেও এসেছিল বলেও অভিযোগ। ইউপিএ জামানার এই দুর্নীতির তদন্তের চূড়ান্ত কিনারা করতেই ভারতেই মাটিতে বিমানে করে উড়িয়ে আনা হয়েছে মাইকেলকে। মাইকেল ধরা পড়ার পর থেকেই সিবিআই এবং ইডি’র আধিকারিকরা গত একবছরে একাধিকবার দুবাইতেও গিয়েছিলেন।

সম্প্রতি আবু ধাবিতে সুষমা স্বরাজের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরশাহির বিদেশমন্ত্রী আবদুল্লা বিন জাইদের আলোচনার পরই মাইকেলের ভারতে আসার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়। গত জুলাই মাসে মাইকেলের আইনজীবী এক বিবৃতিতে জানান যে ভারতের কোনও কোনও মহল থেকে কংগ্রেসের সনিয়া গান্ধির নাম জড়িয়ে দেওয়ার ব্যাপারে তার উপর চাপ আসছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের এই প্রত্যার্পণের ফলে ২০১৯ এর নির্বাচনের আগে বিজেপি যে একটু সুবিধাজনক জায়গায় থাকার সম্ভবনা তৈরি করল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here