news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দেশজুড়ে লকডাউন লাগু থাকায় বন্ধ হয়েছিল ছবির শ্যুটিং। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি ক্রমে বেশকিছু রাজ্যে সরকার নির্দিষ্ট সাবধানতা অবলম্বন করে শ্যুটিং শুরুর অনুমতি দিয়েছে। এরই মাঝে চরম বিপত্তি ঘটল কেরলে। ছবির শ্যুটিং- এর জন্য গির্জার সেট বানানোতে আপত্তি জানিয়ে তা ভেঙে গুঁড়িয়ে দিল কেরলের একটি হিন্দুত্ব বাদী সংগঠন।

গত রবিবার কেরলে ‘মিন্নাল মুরালি’ ছবির বিশাল সেট ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে একদল যুবক। অভিযোগ তাঁরা সকলেই হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের সদস্য। ফেসবুকে সেই সেট ধ্বংসের ছবিও পোস্ট করেছে ওই যুবকেরা। একে করোনার সংকটের জন্য শ্যুটিং বন্ধ থাকায় ক্ষতির মুখে পড়েছেন প্রযোজকেরা তার ওপর এই তাণ্ডবের জেরে মাথায় হাত ছবির প্রযোজকের।

কেরলের এরনাকুলাম জেলার পেরিয়ার নদীর তীরে কালাডিতে গির্জার আদলে তৈরি এই বিশালাকার সেট। যার অদূরেই রয়েছে একটি মহাদেবের মন্দির। আর হামলাকারীদের তা নিয়েই অভিযোগ। মহাদেবের মন্দিরের কাছে কী ভাবে গির্জার সেট বানানো হয়, সেই অভিযোগ তুলেই গত রবিবার ওই ফিল্মের সেট হাতুড়ি দিয়ে গুঁড়িয়ে দেন আন্তঃরাষ্ট্র হিন্দু পরিষদ- এর সদস্যরা।

এই ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পি বিজয়ন। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই রাষ্ট্রীয় বজরং দল- এর একজন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনার তদন্তের জন্য একজন উচ্চ পদস্থ পুলিশ আধিকারিকের নেতৃত্বে সিট গঠন করেছে কেরল পুলিশ।

চলতি বছরের আগস্ট মাসে মুক্তির কথা ছিল ‘মিন্নাল মুরালি’ ছবির, কিন্তু লকডাউন লাগু থাকার জেরে ছবির শ্যুটিং বন্ধ হয়ে যায়। এরই মাঝে এই ছবির সেট ধ্বংস হওয়ায় ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েন প্রযোজক। ঘটনার তীব্র নিন্দা করে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবি জানিয়েছে বিজেপি এবং আরএসএস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here